ফাঁ’কা গু’লি ছু’ড়ে বা’ইক থেকে প’ড়ল আ.লীগ নে’তার ছেলে

কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলায় ফাঁকা গুলি ছুড়ে বাইক থেকে পড়ে যান এক যুবক। তাকে আটকের পর গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে এ সময় তার সঙ্গে থাকা আরও পাঁচজন পালিয়ে যান বলে জানা গেছে।

আটক যুবকের নাম ফাহিম ওরফে বাদশা ফাহিম (২২)। তিনি কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার ২নং উত্তর দুর্গাপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেম্বার হুমায়ুন কবির ছেলে।

সোমবার রাত ৯টায় বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি শাহাদৌলতপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি খালি ম্যাগজিন ও দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে সাবির আহাম্মদ নামে এক ব্যক্তি বাদী হয়ে ফাহিমকে প্রধান আসামি করে ছয়জনের নামে বুড়িচং থানায় মামলা করেন।

গ্রেফতার ফাহিম স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বলেছেন, আমরা দুই বাইকে ছয়জন ছিলাম। আমি পিস্তল থেকে ফাঁকা গুলি ছুড়ে বাইক থেকে পড়ে যাই, জনতা ধাওয়া করলে আমি পুকুরে পানিতে পড়ে যাই। সঙ্গে থাকা অন্যরা আমাকে ফেলে চলে যায়।

বুড়িচং থানার ওসি আলমগীর হোসেন বলেন, খবর পেয়ে আমি নিজে রাতে ঘটনাস্থলে যাই। এ ঘটনায় বিদেশি একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে। ফাহিমকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয়ে বুড়িচং থানায় মামলা করা হয়েছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার সাবির আহাম্মদ বাদী হয়ে ফাহিমকে প্রধান আসামি করে ছয়জনের নামে বুড়িচং থানায় মামলা করেন।আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তাদের বুড়িচং থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলায় ফাঁকা গুলি ছুড়ে বাইক থেকে পড়ে যান এক যুবক। তাকে আটকের পর গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে এ সময় তার সঙ্গে থাকা আরও পাঁচজন পালিয়ে যান বলে জানা গেছে।

আটক যুবকের নাম ফাহিম ওরফে বাদশা ফাহিম (২২)। তিনি কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার ২নং উত্তর দুর্গাপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেম্বার হুমায়ুন কবির ছেলে।

সোমবার রাত ৯টায় বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি শাহাদৌলতপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি খালি ম্যাগজিন ও দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে সাবির আহাম্মদ নামে এক ব্যক্তি বাদী হয়ে ফাহিমকে প্রধান আসামি করে ছয়জনের নামে বুড়িচং থানায় মামলা করেন।

গ্রেফতার ফাহিম স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বলেছেন, আমরা দুই বাইকে ছয়জন ছিলাম। আমি পিস্তল থেকে ফাঁকা গুলি ছুড়ে বাইক থেকে পড়ে যাই, জনতা ধাওয়া করলে আমি পুকুরে পানিতে পড়ে যাই। সঙ্গে থাকা অন্যরা আমাকে ফেলে চলে যায়।

বুড়িচং থানার ওসি আলমগীর হোসেন বলেন, খবর পেয়ে আমি নিজে রাতে ঘটনাস্থলে যাই। এ ঘটনায় বিদেশি একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে। ফাহিমকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয়ে বুড়িচং থানায় মামলা করা হয়েছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার সাবির আহাম্মদ বাদী হয়ে ফাহিমকে প্রধান আসামি করে ছয়জনের নামে বুড়িচং থানায় মামলা করেন।আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তাদের বুড়িচং থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

About admin

Check Also

টাকার মান আরেক দফা কমালো বাংলাদেশ ব্যাংক

বারো দিনের মাথায় টাকার মান আরেক দফা কমালো বাংলাদেশ ব্যাংক। গত ২৭ এপ্রিল মার্কিন ডলারের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.