শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৩০ দিনের জন্য বন্ধ চেয়ে আবেদন

রোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে অবিলম্বে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৩০ দিনের জন্য বন্ধ চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়েছে। বুধবার (১৯ জানুয়ারি) এ বিষয়ে সম্পূরক আবেদন করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। তিনি জানান, বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি এসএম মনিরুজ্জামানের বেঞ্চে এ আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে।

এরআগে গতকাল (১৮ জানুয়ারি) ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ডিসি সম্মেলনে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত আলোচনা অনুষ্ঠিন শেষে শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়ার কথা সরকার ভাবছে না।

এখন পর্যন্ত তেমন পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। সে কারণে এখনই শিক্ষার্থীদের সশরীরে পাঠদান বন্ধ রাখা হচ্ছে না। তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার কারণে ক্লাস চালু রাখা সম্ভব না হলে অনলাইন ক্লাস-অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হবে।

রোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে অবিলম্বে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৩০ দিনের জন্য বন্ধ চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়েছে। বুধবার (১৯ জানুয়ারি) এ বিষয়ে সম্পূরক আবেদন করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। তিনি জানান, বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি এসএম মনিরুজ্জামানের বেঞ্চে এ আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে।

এরআগে গতকাল (১৮ জানুয়ারি) ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ডিসি সম্মেলনে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত আলোচনা অনুষ্ঠিন শেষে শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়ার কথা সরকার ভাবছে না।

এখন পর্যন্ত তেমন পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। সে কারণে এখনই শিক্ষার্থীদের সশরীরে পাঠদান বন্ধ রাখা হচ্ছে না। তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার কারণে ক্লাস চালু রাখা সম্ভব না হলে অনলাইন ক্লাস-অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হবে।

রোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে অবিলম্বে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৩০ দিনের জন্য বন্ধ চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়েছে। বুধবার (১৯ জানুয়ারি) এ বিষয়ে সম্পূরক আবেদন করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। তিনি জানান, বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি এসএম মনিরুজ্জামানের বেঞ্চে এ আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে।

এরআগে গতকাল (১৮ জানুয়ারি) ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ডিসি সম্মেলনে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত আলোচনা অনুষ্ঠিন শেষে শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়ার কথা সরকার ভাবছে না।

এখন পর্যন্ত তেমন পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। সে কারণে এখনই শিক্ষার্থীদের সশরীরে পাঠদান বন্ধ রাখা হচ্ছে না। তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার কারণে ক্লাস চালু রাখা সম্ভব না হলে অনলাইন ক্লাস-অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হবে।

About admin

Check Also

ছুটি বাড়ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের

রমজানে চালু থাকবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। প্রাথমিক স্কুল চলবে ২০ রমজান পর্যন্ত। আর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক …

Leave a Reply

Your email address will not be published.