স্ত্রীকে নিয়ে সারাদিন ঘুরে বেড়ানোর পর জবাই করলো স্বামী

রাজবাড়ী পাংশা উপজেলার মাছপাড়া ইউনিয়নের কালি নগর গ্রামে স্বামী মোঃ রুবেল সরদারের হাতে খুন হয়েছে তার স্ত্রী লিপি বেগম (২৯)। ঘাতক রুবেল সরদার একই গ্রামের ওকুল সরদারের ছেলে। এ ঘটনায় স্থানীয়রা রুবেল সরদারকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। পুলিশ হত্যকারী রুবেলকে আটক দেখিয়েছেন।

বুধবার সকাল ৮টার দিকে রুবেল সরদারের নিজ ঘরে হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। স্বামী রুবেল মাদকাসক্ত ছিলেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। স্থানীয় একাধিক ব্যাক্তি জানান, সকালে রুবেল তার স্ত্রীকে সাজিয়ে এলাকায় ঘুরে বেড়িয়েছেন।

ঘোরা শেষ করে নিজ ঘরে হাসুয়া দিয়ে জবাই করেছে। তিনি মাঝে মাঝে পাগলামী করতো বলে স্থানীয়রা জানান।মাছপাড়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোন্তাজ উদ্দিন খান বলেন, এলাকায় মাদকাসক্ত ও মানসিক রোগী হিসেব পরিচিত ছিলো রুবেল।

সকাল সাড়ে ৭টার কিছুক্ষণ পরে সে তার স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা করেছে। নিহত লিপি খাতুনের তিনটি ছেলে সন্তান রয়েছে। লিপির বাবার বাড়ী একই উপজেলার সাজুরিয়া গ্রামে।পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মাসুদুর রহমান বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরে এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটতে পারে।

প্রথমে সে মাছের ব্যবসা করতো। তাকে মাদকাসক্ত বলা কঠিন। এ ঘটনায় সহকারী পুলিশ সুপার (পাংশা সার্কেল) সুমন কুমার সাহা,পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ মাসুদুর রহমান তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। একই সাথে স্থানীয়রা ঘাতকে আটকে রাখায় তাদের ধন্যবাদ জানান।

রাজবাড়ী পাংশা উপজেলার মাছপাড়া ইউনিয়নের কালি নগর গ্রামে স্বামী মোঃ রুবেল সরদারের হাতে খুন হয়েছে তার স্ত্রী লিপি বেগম (২৯)। ঘাতক রুবেল সরদার একই গ্রামের ওকুল সরদারের ছেলে। এ ঘটনায় স্থানীয়রা রুবেল সরদারকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। পুলিশ হত্যকারী রুবেলকে আটক দেখিয়েছেন।

বুধবার সকাল ৮টার দিকে রুবেল সরদারের নিজ ঘরে হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। স্বামী রুবেল মাদকাসক্ত ছিলেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। স্থানীয় একাধিক ব্যাক্তি জানান, সকালে রুবেল তার স্ত্রীকে সাজিয়ে এলাকায় ঘুরে বেড়িয়েছেন।

ঘোরা শেষ করে নিজ ঘরে হাসুয়া দিয়ে জবাই করেছে। তিনি মাঝে মাঝে পাগলামী করতো বলে স্থানীয়রা জানান।মাছপাড়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোন্তাজ উদ্দিন খান বলেন, এলাকায় মাদকাসক্ত ও মানসিক রোগী হিসেব পরিচিত ছিলো রুবেল।

সকাল সাড়ে ৭টার কিছুক্ষণ পরে সে তার স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা করেছে। নিহত লিপি খাতুনের তিনটি ছেলে সন্তান রয়েছে। লিপির বাবার বাড়ী একই উপজেলার সাজুরিয়া গ্রামে।পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মাসুদুর রহমান বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরে এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটতে পারে।

প্রথমে সে মাছের ব্যবসা করতো। তাকে মাদকাসক্ত বলা কঠিন। এ ঘটনায় সহকারী পুলিশ সুপার (পাংশা সার্কেল) সুমন কুমার সাহা,পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ মাসুদুর রহমান তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। একই সাথে স্থানীয়রা ঘাতকে আটকে রাখায় তাদের ধন্যবাদ জানান।

About admin

Check Also

সেপ্টেম্বর থেকে দেশে আর কোনো লোডশেডিং থাকবে না: পরিকল্পনামন্ত্রী

আগামী সেপ্টেম্বর মাস থেকে দেশে আর কোনো লোডশেডিং থাকবে না বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.