জানালা ভাঙার ক্ষতিপূরণ বাবদ ১৭ হাজার টাকা রেখে গেলো ‘মানবিক চোর’

চুরি বিদ্যা মহাবিদ্যা যদি না পড়ে ধরা। সিঁধেল চুরি আর পুকুর চুরি! যে চুরিই হোক! নিরাপদে সারতে পারাটাও পাণ্ডিত্য! হোক না চুরিতে! পুকুর চুরি অর্থাৎ বড় ধরনের চুরি, এই যেমন রাষ্ট্রিয় কোটি টাকা পাচার কিংবা লাখ টাকা ঘুষ বাবদ গ্রহণ করলে তিনি মিডিয়ার হিরো (খলনায়কও বটে) হয়ে যান।

সিঁধেল চোর অর্থাৎ ছোট চোরদেরই যতো দুঃখ! এদের খোঁজ নেয় না কেউ।ঘটনাটি যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকো রাজ্যের। রাতে জানালার কাচ ভেঙে একটি বাড়ি ঢুকে পড়ে চোর।

পরে সকালে ক্ষতিপূরণের টাকা রেখে গিয়ে আলোচনার জন্ম দিয়েছে এক ‘মানবিক চোর’! ঘটনার রাতে হাড় কাঁপানো ঠাণ্ডা। তার উপর প্রচণ্ড তুষারপাত হচ্ছিল। একটি বাড়ি ফাঁকা দেখতে পেয়ে জানলা ভেঙে ঢুকে পড়ে চোর।

সেই বাড়িতে রাতে খাওয়াদাওয়া করে, টিভি দেখে, আরাম করে বিছানায় ঘুমিয়ে ভোরের আলো ফুটতেই বাড়ি ছেড়ে চম্পট দেন তিনি। যাওয়ার আগে বাড়ির মালিকের জন্য একটি কাগজে লিখে রেখে যান, ‘জানলার কাচ ভাঙার জন্য দুঃখিত।’ সেই কাগজের পাশেই নগদ প্রায় ১৭ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ হিসেবে রেখে দিয়েছিলেন তিনি।

এ ঘটনার পর সেই ‘চোরকে’ অবশ্য ধরে ফেলেছে পুলিশ। তার নাম ‘টেরাল ক্রিস্টেসন’। তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, প্রচণ্ড ঠাণ্ডার কারণে বাধ্য হয়েই ওই বাড়িতে ঢুকেছিলেন। কিন্তু জানালার কাচ ভেঙে ঢোকার জন্য তার মধ্যে একটা অপরাধবোধ কাজ করেছিল। তাই ক্ষতিপূরণ দিয়ে গেছেন। তিনি সত্যি বলছেন কি না তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

চুরি বিদ্যা মহাবিদ্যা যদি না পড়ে ধরা। সিঁধেল চুরি আর পুকুর চুরি! যে চুরিই হোক! নিরাপদে সারতে পারাটাও পাণ্ডিত্য! হোক না চুরিতে! পুকুর চুরি অর্থাৎ বড় ধরনের চুরি, এই যেমন রাষ্ট্রিয় কোটি টাকা পাচার কিংবা লাখ টাকা ঘুষ বাবদ গ্রহণ করলে তিনি মিডিয়ার হিরো (খলনায়কও বটে) হয়ে যান।

সিঁধেল চোর অর্থাৎ ছোট চোরদেরই যতো দুঃখ! এদের খোঁজ নেয় না কেউ।ঘটনাটি যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকো রাজ্যের। রাতে জানালার কাচ ভেঙে একটি বাড়ি ঢুকে পড়ে চোর।

পরে সকালে ক্ষতিপূরণের টাকা রেখে গিয়ে আলোচনার জন্ম দিয়েছে এক ‘মানবিক চোর’! ঘটনার রাতে হাড় কাঁপানো ঠাণ্ডা। তার উপর প্রচণ্ড তুষারপাত হচ্ছিল। একটি বাড়ি ফাঁকা দেখতে পেয়ে জানলা ভেঙে ঢুকে পড়ে চোর।

সেই বাড়িতে রাতে খাওয়াদাওয়া করে, টিভি দেখে, আরাম করে বিছানায় ঘুমিয়ে ভোরের আলো ফুটতেই বাড়ি ছেড়ে চম্পট দেন তিনি। যাওয়ার আগে বাড়ির মালিকের জন্য একটি কাগজে লিখে রেখে যান, ‘জানলার কাচ ভাঙার জন্য দুঃখিত।’ সেই কাগজের পাশেই নগদ প্রায় ১৭ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ হিসেবে রেখে দিয়েছিলেন তিনি।

এ ঘটনার পর সেই ‘চোরকে’ অবশ্য ধরে ফেলেছে পুলিশ। তার নাম ‘টেরাল ক্রিস্টেসন’। তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, প্রচণ্ড ঠাণ্ডার কারণে বাধ্য হয়েই ওই বাড়িতে ঢুকেছিলেন। কিন্তু জানালার কাচ ভেঙে ঢোকার জন্য তার মধ্যে একটা অপরাধবোধ কাজ করেছিল। তাই ক্ষতিপূরণ দিয়ে গেছেন। তিনি সত্যি বলছেন কি না তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

About admin

Check Also

যে উপহার দিয়ে ‘বাবা’ সৃজিতকে মুগ্ধ করলেন আইরা

কলকাতার পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় এবং বাংলাদেশি অভিনেত্রী রাফিয়াত রশীদ মিথিলা দম্পতির মেয়ে আইরা। মিথিলাকে বিয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.