আমি এখনও নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক, নিপুণ গায়ের জোরে চেয়ারে বসেছেন : জায়েদ খান

গতকাল রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) এফডিসির উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে নতুন কমিটির শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নতুন নেতৃত্ব পেল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। নতুন সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চনকে শপথ বাক্য পাঠ করান বিদায়ী সভাপতি মিশা সওদাগর।

দায়িত্ব বুঝে নেওয়ার পর বর্তমান সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন বিভিন্ন পদে নির্বাচিত অন্য সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান। সমিতির কার্যালয়ে কাঞ্চন-নিপুণকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেন মিশা সওদাগর। এরপর তারা নির্ধারিত আসন গ্রহণ করেন এবং হাস্যোজ্জল মুখে ক্যামেরাবন্দি হন। বিষয়টি নিয়ে অবশেষে মুখ খুলেছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান।

এই নায়ক বলেন, আমি এখনও ভোটে নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক। এফডিসিতে নিপুণ বহিরাগত ছেলেদের নিয়ে এসে গায়ের জোরে সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে বসেছেন, এ কারণে আমি আইনি প্রক্রিয়ায় এগোচ্ছি। ১৭৬ জন ভোটার আমাকে তাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে। এর সম্মান আমাকে রাখতেই হবে।

জায়েদ খান আরও বলেন, গত দুইদিন এফডিসিতে শত শত বাইরের মানুষ আনা হয়েছে। পেশিশক্তি দেখিয়ে নিজেকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করলেই কি সেটা কার্যকর হয়ে যাবে? এফডিসিতে সৃজনশীল কাজ হয়। সিনেমা, শিল্পের কাজ হয়। এখানে এত বহিরাগত ছেলে, ওরা কারা?

‘অন্তর জ্বালা’খ্যাত এই নায়কের অভিযোগ, সোহানুর রহমান সোহান, মোহাম্মদ হোসেনকে নিয়ে নিপুণ শুক্রবার রাতে বনানীর একটি রেস্তোরাঁয় বসে এই নীল নকশা তৈরি করে। ওদের গোপন এই তথ্য আমার কাছে আছে।

আইনের কাছে এই নীল নকশা হেরে যাবে। অবৈধভাবে নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদককে যেন শপথ না করানো হয় এ জন্য আমি সোহানুর রহমান সোহান ও মোহাম্মদ হোসেনকে আজকেও আইনি নোটিশ পাঠিয়েছি। তারা কেউ আইন মানছেনই না। এখন আমার একটাই পথ আইনি প্রক্রিয়ায় লড়াই চালিয়ে যাওয়া।

গতকাল রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) এফডিসির উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে নতুন কমিটির শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নতুন নেতৃত্ব পেল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। নতুন সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চনকে শপথ বাক্য পাঠ করান বিদায়ী সভাপতি মিশা সওদাগর।

দায়িত্ব বুঝে নেওয়ার পর বর্তমান সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন বিভিন্ন পদে নির্বাচিত অন্য সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান। সমিতির কার্যালয়ে কাঞ্চন-নিপুণকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেন মিশা সওদাগর। এরপর তারা নির্ধারিত আসন গ্রহণ করেন এবং হাস্যোজ্জল মুখে ক্যামেরাবন্দি হন। বিষয়টি নিয়ে অবশেষে মুখ খুলেছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান।

এই নায়ক বলেন, আমি এখনও ভোটে নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক। এফডিসিতে নিপুণ বহিরাগত ছেলেদের নিয়ে এসে গায়ের জোরে সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে বসেছেন, এ কারণে আমি আইনি প্রক্রিয়ায় এগোচ্ছি। ১৭৬ জন ভোটার আমাকে তাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে। এর সম্মান আমাকে রাখতেই হবে।

জায়েদ খান আরও বলেন, গত দুইদিন এফডিসিতে শত শত বাইরের মানুষ আনা হয়েছে। পেশিশক্তি দেখিয়ে নিজেকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করলেই কি সেটা কার্যকর হয়ে যাবে? এফডিসিতে সৃজনশীল কাজ হয়। সিনেমা, শিল্পের কাজ হয়। এখানে এত বহিরাগত ছেলে, ওরা কারা?

‘অন্তর জ্বালা’খ্যাত এই নায়কের অভিযোগ, সোহানুর রহমান সোহান, মোহাম্মদ হোসেনকে নিয়ে নিপুণ শুক্রবার রাতে বনানীর একটি রেস্তোরাঁয় বসে এই নীল নকশা তৈরি করে। ওদের গোপন এই তথ্য আমার কাছে আছে।

আইনের কাছে এই নীল নকশা হেরে যাবে। অবৈধভাবে নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদককে যেন শপথ না করানো হয় এ জন্য আমি সোহানুর রহমান সোহান ও মোহাম্মদ হোসেনকে আজকেও আইনি নোটিশ পাঠিয়েছি। তারা কেউ আইন মানছেনই না। এখন আমার একটাই পথ আইনি প্রক্রিয়ায় লড়াই চালিয়ে যাওয়া।

About admin

Check Also

বা’সর রা’তে সে এ’মন ভাবে ক’রবে আ’মি বি’শ্বাস ক’রতে পা’রছি না, ছিঃ…

বাসর রাত। সবার জীবনে এই রাতটি নাকি অনেক স্বপ্নের, অনেক আশার। ওসব ভাবনার নিকুচি করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.