বাবা নেই অভাবের সংসারে মা এবং ছোট ভাইয়ের মুখে দুমুঠো খাবার দিতে রাস্তায় রিকশা নিয়ে এই সুন্দরী যুবতী, শুনোন তার দুঃখের কাহীনি!

বাবা নেই অভাবের সংসারে মা এবং ছোট ভাইয়ের মুখে দুমুঠো খাবার দিতে রাস্তায় রিকশা নিয়ে এই সুন্দরী যুবতী, শুনোন তার দুঃখের কাহীনি!এখন তার মা অ’সুস্থ মনে করলে বাহিরে বের হয়ে যায়

আবার যখন সন্তানদের কথা মনে পড়ে তখন নীড়ে ফিরে আসে। অন্যদিকে মেয়েটি সকাল আট’টা থেকে রাত আট’টা-নয়টা পর্যন্ত রিকশা চালিয়ে ছোট ভাই বোনের মুখে খাবার তুলে দেয়।

মেয়েটি দৈনিক ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা আয় করে।সেই আয় ‘হতে রিক্সা ভাড়া দিয়ে যা জোটে তাই সে ভাই-বোনদের জন্য নিয়ে যায়। অর্থের অভাবে সে ভাই-বোনদের ভালো একটি কাপড়-চোপড় দিতে পারে না এবং পড়াশোনা করাতে পারে না।

মেয়েটিকে যখন জিজ্ঞেস করা হয় ঝড় বৃ’ষ্টির সময় এই ঘরে তারা কিভাবে থাকে? তখন মেয়েটি বলল যে,ঝড় বৃ’ষ্টির সময় কোন দোকান খোলা থাকবে সেখানে দাঁড়িয়ে থাকে অথবা মন্দিরে গিয়ে বসে থাকে।কারণ যদি ঝড় বৃ’ষ্টির সময় ঘরের উপর গাছ পড়ে যায় তখন তারা নির্ঘা’ত মা’রা যাব’ে। মেয়েটিকে তার মা এবং ভাই বোনদের কে নিয়ে সুরক্ষা স্থানে চলে যায়।

মেয়েটিকে বলা হলো তোমাকে কেউ সাহায্য করতে চাইলে তুমি কি কে সেই সাহায্য নেবে? অর্থ দিয়ে বা তোমাকে কোনো চাকরি দিয়ে যদি কেউ সাহায্য দেয় তাহলে তুমি সেই সাহায্য নেবে?তখন মেয়েটি খুব সুন্দর ভাবে উত্তর দিলো যে হ্যাঁ অবশ্যই নিব। তবে চাকরির ক্ষেত্রে যদি আমা’র সুরক্ষা থাকে তাহলে আমি অবশ্যই নিব।

বাবা নেই অভাবের সংসারে মা এবং ছোট ভাইয়ের মুখে দুমুঠো খাবার দিতে রাস্তায় রিকশা নিয়ে এই সুন্দরী যুবতী, শুনোন তার দুঃখের কাহীনি!এখন তার মা অ’সুস্থ মনে করলে বাহিরে বের হয়ে যায় আবার যখন সন্তানদের কথা মনে পড়ে তখন নীড়ে ফিরে আসে। অন্যদিকে মেয়েটি সকাল আট’টা থেকে রাত আট’টা-নয়টা পর্যন্ত রিকশা চালিয়ে ছোট ভাই বোনের মুখে খাবার তুলে দেয়।

মেয়েটি দৈনিক ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা আয় করে।সেই আয় ‘হতে রিক্সা ভাড়া দিয়ে যা জোটে তাই সে ভাই-বোনদের জন্য নিয়ে যায়। অর্থের অভাবে সে ভাই-বোনদের ভালো একটি কাপড়-চোপড় দিতে পারে না এবং পড়াশোনা করাতে পারে না।

মেয়েটিকে যখন জিজ্ঞেস করা হয় ঝড় বৃ’ষ্টির সময় এই ঘরে তারা কিভাবে থাকে? তখন মেয়েটি বলল যে,ঝড় বৃ’ষ্টির সময় কোন দোকান খোলা থাকবে সেখানে দাঁড়িয়ে থাকে অথবা মন্দিরে গিয়ে বসে থাকে।কারণ যদি ঝড় বৃ’ষ্টির সময় ঘরের উপর গাছ পড়ে যায় তখন তারা নির্ঘা’ত মা’রা যাব’ে। মেয়েটিকে তার মা এবং ভাই বোনদের কে নিয়ে সুরক্ষা স্থানে চলে যায়।

মেয়েটিকে বলা হলো তোমাকে কেউ সাহায্য করতে চাইলে তুমি কি কে সেই সাহায্য নেবে? অর্থ দিয়ে বা তোমাকে কোনো চাকরি দিয়ে যদি কেউ সাহায্য দেয় তাহলে তুমি সেই সাহায্য নেবে?তখন মেয়েটি খুব সুন্দর ভাবে উত্তর দিলো যে হ্যাঁ অবশ্যই নিব। তবে চাকরির ক্ষেত্রে যদি আমা’র সুরক্ষা থাকে তাহলে আমি অবশ্যই নিব।

About admin

Check Also

মধ্যবিত্তদের জন্য খুশির খবর! মাত্র ১৫০ টাকা করে জমা করলেই পাবেন ২৫ লক্ষ টাকা

মধ্যবিত্তদের জন্য খুশির খবর! মাত্র ১৫০ জমা করেলেই পাবে ২৫ লক্ষ টাকা – এবার মধ্যবিত্তের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.