বিয়ের ৮ বছর পর একসঙ্গে কোলে এল চার সন্তান

গৃহবধূর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকালে চিকিৎসকদের পরামর্শে আদুরী বেগমকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পরে রাত সাড়ে নয়টার দিকে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে চার সন্তানের জন্ম দেন তিনি।

চার নবজাতকের বাবা মনিরুজ্জামান ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে কাজ করেন। আট বছর পর একসঙ্গে চার সন্তানের জন্মে তিনি খুব খুশি বলে জানালেন। তিনি বলেন, গত ১ মার্চ আলট্রাসনোগ্রাম করে একসঙ্গে চার সন্তানের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর চিকিৎসকের পরামর্শে নিবিড় পর্যবেক্ষণে চলাফেরা করতে হয়েছে। বর্তমানে চার নবজাতকই ভালো আছে।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী রেজিস্ট্রার (গাইনি বিভাগ) ফারহানা ইয়াসমিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গর্ভধারণের আট মাস পর এই চার নবজাতকের জন্ম হয়েছে। এর মধ্যে ছেলে নবজাতকের ওজন একটু কম। বাকি তিন মেয়ে নবজাতকের ওজন ও গঠন ঠিক আছে। চার নবজাতকই সুস্থ।

গৃহবধূর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকালে চিকিৎসকদের পরামর্শে আদুরী বেগমকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পরে রাত সাড়ে নয়টার দিকে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে চার সন্তানের জন্ম দেন তিনি।

চার নবজাতকের বাবা মনিরুজ্জামান ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে কাজ করেন। আট বছর পর একসঙ্গে চার সন্তানের জন্মে তিনি খুব খুশি বলে জানালেন। তিনি বলেন, গত ১ মার্চ আলট্রাসনোগ্রাম করে একসঙ্গে চার সন্তানের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর চিকিৎসকের পরামর্শে নিবিড় পর্যবেক্ষণে চলাফেরা করতে হয়েছে। বর্তমানে চার নবজাতকই ভালো আছে।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী রেজিস্ট্রার (গাইনি বিভাগ) ফারহানা ইয়াসমিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গর্ভধারণের আট মাস পর এই চার নবজাতকের জন্ম হয়েছে। এর মধ্যে ছেলে নবজাতকের ওজন একটু কম। বাকি তিন মেয়ে নবজাতকের ওজন ও গঠন ঠিক আছে। চার নবজাতকই সুস্থ।

গৃহবধূর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকালে চিকিৎসকদের পরামর্শে আদুরী বেগমকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পরে রাত সাড়ে নয়টার দিকে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে চার সন্তানের জন্ম দেন তিনি।

চার নবজাতকের বাবা মনিরুজ্জামান ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে কাজ করেন। আট বছর পর একসঙ্গে চার সন্তানের জন্মে তিনি খুব খুশি বলে জানালেন। তিনি বলেন, গত ১ মার্চ আলট্রাসনোগ্রাম করে একসঙ্গে চার সন্তানের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর চিকিৎসকের পরামর্শে নিবিড় পর্যবেক্ষণে চলাফেরা করতে হয়েছে। বর্তমানে চার নবজাতকই ভালো আছে।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী রেজিস্ট্রার (গাইনি বিভাগ) ফারহানা ইয়াসমিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গর্ভধারণের আট মাস পর এই চার নবজাতকের জন্ম হয়েছে। এর মধ্যে ছেলে নবজাতকের ওজন একটু কম। বাকি তিন মেয়ে নবজাতকের ওজন ও গঠন ঠিক আছে। চার নবজাতকই সুস্থ।

About admin

Check Also

১৩ জ’ন স্ত্রী’কে এ’কসাথে গ’র্ভবতী বা’নিয়ে বি’শ্বরেকর্ড ক’রলেন স্বা’মী

বহুবিবাহ প্রথা ভারতে বহু বছর আগে ছিল, যেখানে একজনের একাধিক স্ত্রী থাকতো যদিও কিছু কিছু …

Leave a Reply

Your email address will not be published.