কিস্তির টাকা তুলতে গিয়ে গাছ চাপায় প্রাণ হারালেন এনজিও কর্মী

শনিবার (৯ এপ্রিল) সকাল ১০টার দিকে ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের গজগাহ গ্রামে কিস্তি তোলার সময় নারিকেল গাছ ভেঙে মাথায় পড়ে এনজিওকর্মী নিহত হয়েছেন।

নিহতের নাম নাম সাথী দত্ত (৩৬)। তিনি ‘আশা’র নগরকান্দা উপজেলার তালমা-১ ব্রাঞ্চের সিনিয়র ঋণ কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। তিনি পার্শ্ববর্তী বোয়ালমারী উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নের কমলেশ্বরদি গ্রামের পলাশ দত্তের স্ত্রী।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সাথী দত্ত প্রতিদিনের মতো আশা এনজিওর ঋণের কিস্তি সংগ্রহের কাজে ওই বাড়িতে যান। হটাৎ উঠানের পাশে থাকা একটি ৩০ থেকে ৪০ ফুটের লম্বা নারকেল গাছ তার মাথায় ভেঙে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে নগরকান্দা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

এ ব্যাপারে আশার নগরকান্দা রিজিওনাল ম্যানেজার ফরহাদ খান বলেন, আমাদের এনজিও কর্মীর মৃত্যুর খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। নিহতের পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তরের জন্য সকল কাজ সম্পন্ন করেছি।

শনিবার (৯ এপ্রিল) সকাল ১০টার দিকে ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের গজগাহ গ্রামে কিস্তি তোলার সময় নারিকেল গাছ ভেঙে মাথায় পড়ে এনজিওকর্মী নিহত হয়েছেন।

নিহতের নাম নাম সাথী দত্ত (৩৬)। তিনি ‘আশা’র নগরকান্দা উপজেলার তালমা-১ ব্রাঞ্চের সিনিয়র ঋণ কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। তিনি পার্শ্ববর্তী বোয়ালমারী উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নের কমলেশ্বরদি গ্রামের পলাশ দত্তের স্ত্রী।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সাথী দত্ত প্রতিদিনের মতো আশা এনজিওর ঋণের কিস্তি সংগ্রহের কাজে ওই বাড়িতে যান। হটাৎ উঠানের পাশে থাকা একটি ৩০ থেকে ৪০ ফুটের লম্বা নারকেল গাছ তার মাথায় ভেঙে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে নগরকান্দা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

এ ব্যাপারে আশার নগরকান্দা রিজিওনাল ম্যানেজার ফরহাদ খান বলেন, আমাদের এনজিও কর্মীর মৃত্যুর খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। নিহতের পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তরের জন্য সকল কাজ সম্পন্ন করেছি।

শনিবার (৯ এপ্রিল) সকাল ১০টার দিকে ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের গজগাহ গ্রামে কিস্তি তোলার সময় নারিকেল গাছ ভেঙে মাথায় পড়ে এনজিওকর্মী নিহত হয়েছেন।

নিহতের নাম নাম সাথী দত্ত (৩৬)। তিনি ‘আশা’র নগরকান্দা উপজেলার তালমা-১ ব্রাঞ্চের সিনিয়র ঋণ কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। তিনি পার্শ্ববর্তী বোয়ালমারী উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নের কমলেশ্বরদি গ্রামের পলাশ দত্তের স্ত্রী।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সাথী দত্ত প্রতিদিনের মতো আশা এনজিওর ঋণের কিস্তি সংগ্রহের কাজে ওই বাড়িতে যান। হটাৎ উঠানের পাশে থাকা একটি ৩০ থেকে ৪০ ফুটের লম্বা নারকেল গাছ তার মাথায় ভেঙে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে নগরকান্দা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

এ ব্যাপারে আশার নগরকান্দা রিজিওনাল ম্যানেজার ফরহাদ খান বলেন, আমাদের এনজিও কর্মীর মৃত্যুর খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। নিহতের পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তরের জন্য সকল কাজ সম্পন্ন করেছি।

About admin

Check Also

প্রেমের টানে বরিশালে এসে মার খেলেন ভারতীয় যুবক

এবার প্রেমের টানে ভারতের দক্ষিণের রাজ্য তামিলনাড়ু থেকে বরিশালে এসে প্রেমিকার অপর প্রেমিকের কাছে মারধরের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.