‘ব’দলি চা’ইলে স্ত্রী’কে এক রা’তের জন্য পা’ঠিয়ে দাও’ ব’সের এমন মন্ত’ব্যে প্রাণ দি’লেন কর্মী

কর্মস্থল বাড়ি থেকে দূরে হওয়ায় বাড়ির কাছাকাছি বদলি হওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন তিনি। কিন্তু বদলি দেওয়া হবে একটি শর্তেই, এক রাতের জন্য স্ত্রীকে পাঠাতে হবে- এমনই এক প্রস্তাব দেন বস। বসের এমন প্রস্তাব সহ্য করতে না পেরে গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন ওই কর্মী।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে। উত্তরপ্রদেশের বিদ্যুৎ বিভাগের লাইনম্যান হিসেবে কর্মরত ছিলেন গোকুল প্রসাদ (৪৫)। কর্মস্থল দূরে হওয়ায় প্রায়ই বদলির আবেদন নিয়ে জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার নগেন্দ্র প্রসাদের কাছে যেতেন তিনি। সেখান থেকেই এমন কুপ্রস্তাব পান গোকুল।

স্ত্রীর উদ্দেশে আসা এমন মন্তব্য মেনে নিতে পারেননি গোকুল। এজন্য দিলেন নিজের প্রাণ। গোকুলের স্ত্রী অভিযোগ করেন, নগেন্দ্র এবং তার এক সঙ্গী গোকুলকে তার নামে কুপ্রস্তাব দিয়েছিলেন। এ নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে নানাভাবে গোকুলকে হেনস্তা করতেন তারা। এ কারণে অবসাদের শিকার হয় আমার স্বামী। এজন্য সে ওষুধও খেতেন।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, এরপরেও আমার স্বামীকে ছাড়েনি তারা। ওকে আলিগঞ্জে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। বাড়ি দূরে হওয়ার কারণে কাছাকাছি বদলির আবেদন জানান তিনি। তখনই ওকে প্রস্তাব দেয়, ‘বদলি চাইলে একটা রাতের জন্য স্ত্রীকে পাঠিয়ে দাও’। স্বামী গায়ে আগুন দেওয়ার পর কেউ তাকে সাহায্য করতে আসেনি বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে পুলিশ কর্মকর্তা সঞ্জীব সুমন বলেছেন, আমরা মামলা দায়ের করেছি। ওই জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ারকে সাসপেন্ড করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ। আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

কর্মস্থল বাড়ি থেকে দূরে হওয়ায় বাড়ির কাছাকাছি বদলি হওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন তিনি। কিন্তু বদলি দেওয়া হবে একটি শর্তেই, এক রাতের জন্য স্ত্রীকে পাঠাতে হবে- এমনই এক প্রস্তাব দেন বস। বসের এমন প্রস্তাব সহ্য করতে না পেরে গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন ওই কর্মী।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে। উত্তরপ্রদেশের বিদ্যুৎ বিভাগের লাইনম্যান হিসেবে কর্মরত ছিলেন গোকুল প্রসাদ (৪৫)। কর্মস্থল দূরে হওয়ায় প্রায়ই বদলির আবেদন নিয়ে জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার নগেন্দ্র প্রসাদের কাছে যেতেন তিনি। সেখান থেকেই এমন কুপ্রস্তাব পান গোকুল।

স্ত্রীর উদ্দেশে আসা এমন মন্তব্য মেনে নিতে পারেননি গোকুল। এজন্য দিলেন নিজের প্রাণ। গোকুলের স্ত্রী অভিযোগ করেন, নগেন্দ্র এবং তার এক সঙ্গী গোকুলকে তার নামে কুপ্রস্তাব দিয়েছিলেন। এ নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে নানাভাবে গোকুলকে হেনস্তা করতেন তারা। এ কারণে অবসাদের শিকার হয় আমার স্বামী। এজন্য সে ওষুধও খেতেন।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, এরপরেও আমার স্বামীকে ছাড়েনি তারা। ওকে আলিগঞ্জে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। বাড়ি দূরে হওয়ার কারণে কাছাকাছি বদলির আবেদন জানান তিনি। তখনই ওকে প্রস্তাব দেয়, ‘বদলি চাইলে একটা রাতের জন্য স্ত্রীকে পাঠিয়ে দাও’। স্বামী গায়ে আগুন দেওয়ার পর কেউ তাকে সাহায্য করতে আসেনি বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে পুলিশ কর্মকর্তা সঞ্জীব সুমন বলেছেন, আমরা মামলা দায়ের করেছি। ওই জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ারকে সাসপেন্ড করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ। আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

About admin

Check Also

টাকার মান আরেক দফা কমালো বাংলাদেশ ব্যাংক

বারো দিনের মাথায় টাকার মান আরেক দফা কমালো বাংলাদেশ ব্যাংক। গত ২৭ এপ্রিল মার্কিন ডলারের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.