তাঁর সঙ্গে গাইতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি: হিরো আলম

ভারতের কলকাতায় গিয়ে একের পর এক কাণ্ড ঘটিয়ে চলেছেন বাংলাদেশের আলোচিত-সমালোচিত সোশ্যাল মিডিয়া ব্যক্তিত্ব আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। প্রথমে ‘বাদামকাকু’ ভুবন বাদ্যকরের সঙ্গে গান রেকর্ড করেছেন। এরপর গান রেকর্ড করলেন রানু মণ্ডলের সঙ্গে। ছবি ও ভিডিও পোস্ট করেছেন নিজের ফেসবুক পেজে।

এদিকে “তুমি ছাড়া আমি কী করে বাঁচি…”- এই গানটিই গেয়েছেন হিরো আলম ও রানু মণ্ডল। লেকটাউনের স্টুডিওতে হয়েছে রেকর্ডিং। নজরুল কবীরের লেখা গানের সুর সাজিয়েছেন এফ এ প্রীতম। প্রযোজনায় যাত্রাপালা এবং হিরো আলম অফিশিয়াল। এই একই টিমের নিয়ে ‘বাদামকাকু’ ভুবন বাদ্যকরের সঙ্গে ‘হাউ ফানি’ গানের রেকর্ড সারেন হিরো আলম।

বীরভূমের ‘বাদামকাকু’ ভুবন বাদ্যকরের উপস্থিতি এখন দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশেও। লন্ডন থেকে লাস ভেগাস, অস্ট্রেলিয়া থেকে তানজানিয়া- ভুবন বাদ্যকরের গানের জাদুতে বুঁদ আট থেকে আশি! দেশি-বিদেশি সেলিব্রিটিরাও তাঁর বাদাম গানে নাচতে ব্যস্ত।

শুধু বাংলাদেশ নয় পশ্চিমবঙ্গেও যথেষ্ট জনপ্রিয় হিরো আলম ওরফে আশরাফুল আলম। তাঁর গানের ভিডিওগুলি হাসির খোরাক হলেও অনলাইনে লক্ষ লক্ষ মানুষ দেখে ফেলেছেন। এঁদের দু’জনের মতোই ভাইরাল তারকা রানু মণ্ডল। রানাঘাট স্টেশন থেকে সোজা বলিউড। রাতারাতি ভাগ্য বদলে গিয়েছিল রানু মণ্ডলের। হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে গান করেছেন তিনি।

তবে সেই উড়ান বেশিদিন ধরে রাখতে পারেননি রানু। খ্যাতিকে সঙ্গে নিয়েই ফিরেছেন রানাঘাটের ভাঙা বাড়িতে। যেন পুরনো অন্ধকারে ডুব দিয়েছেন। তবে রানু মণ্ডলের উথ্থান আজও অনেককে ভরসা দেয়। সেই ভরসাতেই তাঁর সঙ্গে গান রেকর্ড করেছেন বাংলাদেশের হিরো আলম। বাংলাদেশি তারকার আশা, দু’টি গানের ভিডিও-ই দর্শক ও শ্রোতাদের পছন্দ হবে।

এদিকে রাণু মণ্ডলের সঙ্গে গাওয়া প্রসঙ্গে হিরো আলম বলেন, ‘রানু দিদির কণ্ঠ শুনে বলিউড থেকে হিমেশ রেশমিয়া এসেছেন, তাঁকে বলিউডে গান গাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। তাঁর সঙ্গে গাইতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।’

ভারতের কলকাতায় গিয়ে একের পর এক কাণ্ড ঘটিয়ে চলেছেন বাংলাদেশের আলোচিত-সমালোচিত সোশ্যাল মিডিয়া ব্যক্তিত্ব আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। প্রথমে ‘বাদামকাকু’ ভুবন বাদ্যকরের সঙ্গে গান রেকর্ড করেছেন। এরপর গান রেকর্ড করলেন রানু মণ্ডলের সঙ্গে। ছবি ও ভিডিও পোস্ট করেছেন নিজের ফেসবুক পেজে।

এদিকে “তুমি ছাড়া আমি কী করে বাঁচি…”- এই গানটিই গেয়েছেন হিরো আলম ও রানু মণ্ডল। লেকটাউনের স্টুডিওতে হয়েছে রেকর্ডিং। নজরুল কবীরের লেখা গানের সুর সাজিয়েছেন এফ এ প্রীতম। প্রযোজনায় যাত্রাপালা এবং হিরো আলম অফিশিয়াল। এই একই টিমের নিয়ে ‘বাদামকাকু’ ভুবন বাদ্যকরের সঙ্গে ‘হাউ ফানি’ গানের রেকর্ড সারেন হিরো আলম।

বীরভূমের ‘বাদামকাকু’ ভুবন বাদ্যকরের উপস্থিতি এখন দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশেও। লন্ডন থেকে লাস ভেগাস, অস্ট্রেলিয়া থেকে তানজানিয়া- ভুবন বাদ্যকরের গানের জাদুতে বুঁদ আট থেকে আশি! দেশি-বিদেশি সেলিব্রিটিরাও তাঁর বাদাম গানে নাচতে ব্যস্ত।

শুধু বাংলাদেশ নয় পশ্চিমবঙ্গেও যথেষ্ট জনপ্রিয় হিরো আলম ওরফে আশরাফুল আলম। তাঁর গানের ভিডিওগুলি হাসির খোরাক হলেও অনলাইনে লক্ষ লক্ষ মানুষ দেখে ফেলেছেন। এঁদের দু’জনের মতোই ভাইরাল তারকা রানু মণ্ডল। রানাঘাট স্টেশন থেকে সোজা বলিউড। রাতারাতি ভাগ্য বদলে গিয়েছিল রানু মণ্ডলের। হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে গান করেছেন তিনি।

তবে সেই উড়ান বেশিদিন ধরে রাখতে পারেননি রানু। খ্যাতিকে সঙ্গে নিয়েই ফিরেছেন রানাঘাটের ভাঙা বাড়িতে। যেন পুরনো অন্ধকারে ডুব দিয়েছেন। তবে রানু মণ্ডলের উথ্থান আজও অনেককে ভরসা দেয়। সেই ভরসাতেই তাঁর সঙ্গে গান রেকর্ড করেছেন বাংলাদেশের হিরো আলম। বাংলাদেশি তারকার আশা, দু’টি গানের ভিডিও-ই দর্শক ও শ্রোতাদের পছন্দ হবে।

এদিকে রাণু মণ্ডলের সঙ্গে গাওয়া প্রসঙ্গে হিরো আলম বলেন, ‘রানু দিদির কণ্ঠ শুনে বলিউড থেকে হিমেশ রেশমিয়া এসেছেন, তাঁকে বলিউডে গান গাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। তাঁর সঙ্গে গাইতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।’

About admin

Check Also

প্রায় ৩৩ বছর ধরে নিজের বাড়ি মনে করে স্বেচ্ছাশ্রম দিয়ে সমগ্র রায়গঞ্জ শহরকে পরিচ্ছন্ন করেন এই বৃদ্ধ!

আমাদের আশেপাশের পরিবেশের চোখ রাখলে আপনারা এমন অনেক ব্যক্তি দেখতে পারবেন যারা ক্রমাগত পরিবেশকে নানান …

Leave a Reply

Your email address will not be published.