ফর্সা সন্তান পেতে আপেল খেতেন সানিয়া : শোয়েব মালিক

ভারত-পাকিস্তান রাজনৈতিক সম্পর্ক উঁচু তারে বাঁধা। কিন্তু দুই দেশের এই সম্পর্কের মাঝেও কোনও সমস্যা করেনি সানিয়া মির্জা-শোয়েব মালিকের বিয়েতে।ভারতের তারকা টেনিস খেলোয়াড় সানিয়া মির্জার সন্তান যাতে ফর্সা হয়

সেজন্য গর্ভাবস্থায় তাকে আপেল খাওয়াতেন সানিয়ার মা। এ কথা জানিয়েছেন সানিয়ার স্বামী ও পাকিস্তানি ক্রিকেটার শোয়েব মালিক। আর এই মন্তব্য ঘিরেই পাকিস্তানের সামাজিক মাধ্যমে নতুন সামনে এসেছে বর্ণবাদ বিরোধী আলোচনা।

পাকিস্তানের নিদা ইয়াসিরের মর্নিং শো ‘শান-ই-সুহুরে’ অভিনেত্রী উশনা শাহের সঙ্গে উপস্থিত হয়েছিলেন শোয়েব। সেখানে ফর্সা ত্বকের সৌন্দর্যের ওপর সমাজের ধারণা নিয়ে আলোচনা উঠলে শোয়েব বলেন,

আমার শাশুড়ি আমার স্ত্রীকে প্রচুর আপেল খেতে বাধ্য করেন। তারা বলে যে (এটি করার মাধ্যমে) শিশুর ত্বক ফর্সা হয়।এ সময় শাহ বলেন, কিন্তু তোমার ছেলে তো ফর্সা।জবাবে মালিক হেসে বলেন, হ্যাঁ, খুবই ফর্সা। এটি (আপেল) কাজ করেছে।

মালিকের এমন মন্তব্যের বিরোধিতা করে সঙ্গে সঙ্গে পাল্টা মন্তব্য করে উশানা বলেন, কালো ত্বকের তুলনায় ফর্সা ত্বককে চূড়ান্ত সৌন্দর্যের মান হিসাবে বিবেচনা করা অযৌক্তিক।

শাহ আরও বলেন, আমি মনে করি লম্বা এবং কালো মানুষও সুদর্শন। আমার ক্রাশ কোবে ব্রায়ান্ট (আমেরিকান পেশাদার বাস্কেটবল খেলোয়াড়) যিনি একজন কালো মানুষ। মানুষকে কেন এভাবে দেখা হয় তা আমি বুঝতে পারি না। আমাদের ইন্ড্রাস্ট্রিতেও অনেক সুন্দরী মহিলা রয়েছে যাদের ত্বক কালো।

ভারত-পাকিস্তান রাজনৈতিক সম্পর্ক উঁচু তারে বাঁধা। কিন্তু দুই দেশের এই সম্পর্কের মাঝেও কোনও সমস্যা করেনি সানিয়া মির্জা-শোয়েব মালিকের বিয়েতে।ভারতের তারকা টেনিস খেলোয়াড় সানিয়া মির্জার সন্তান যাতে ফর্সা হয়

সেজন্য গর্ভাবস্থায় তাকে আপেল খাওয়াতেন সানিয়ার মা। এ কথা জানিয়েছেন সানিয়ার স্বামী ও পাকিস্তানি ক্রিকেটার শোয়েব মালিক। আর এই মন্তব্য ঘিরেই পাকিস্তানের সামাজিক মাধ্যমে নতুন সামনে এসেছে বর্ণবাদ বিরোধী আলোচনা।

পাকিস্তানের নিদা ইয়াসিরের মর্নিং শো ‘শান-ই-সুহুরে’ অভিনেত্রী উশনা শাহের সঙ্গে উপস্থিত হয়েছিলেন শোয়েব। সেখানে ফর্সা ত্বকের সৌন্দর্যের ওপর সমাজের ধারণা নিয়ে আলোচনা উঠলে শোয়েব বলেন,

আমার শাশুড়ি আমার স্ত্রীকে প্রচুর আপেল খেতে বাধ্য করেন। তারা বলে যে (এটি করার মাধ্যমে) শিশুর ত্বক ফর্সা হয়।এ সময় শাহ বলেন, কিন্তু তোমার ছেলে তো ফর্সা।জবাবে মালিক হেসে বলেন, হ্যাঁ, খুবই ফর্সা। এটি (আপেল) কাজ করেছে।

মালিকের এমন মন্তব্যের বিরোধিতা করে সঙ্গে সঙ্গে পাল্টা মন্তব্য করে উশানা বলেন, কালো ত্বকের তুলনায় ফর্সা ত্বককে চূড়ান্ত সৌন্দর্যের মান হিসাবে বিবেচনা করা অযৌক্তিক।

শাহ আরও বলেন, আমি মনে করি লম্বা এবং কালো মানুষও সুদর্শন। আমার ক্রাশ কোবে ব্রায়ান্ট (আমেরিকান পেশাদার বাস্কেটবল খেলোয়াড়) যিনি একজন কালো মানুষ। মানুষকে কেন এভাবে দেখা হয় তা আমি বুঝতে পারি না। আমাদের ইন্ড্রাস্ট্রিতেও অনেক সুন্দরী মহিলা রয়েছে যাদের ত্বক কালো।

About admin

Check Also

ক্রিকেটারদের সাথে ভিক্ষুকের মত আচরণ? পাপনকে ওভারট্রাম করলেন মেয়র আতিক

অকালে ঝরে গেলো একটি নক্ষত্র। গত ১৯ এপ্রিল মাত্র ৪০ বছর বয়সেই না ফেরার দেশে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.