মোস্তাফিজের ওই ওভারটাই ম্যাচ বদলে গেছে: পান্ত

দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে এবারের আইপিএলে নিজের প্রথম ম্যাচে ২৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট শিকার করেছিলেন বাংলাদেশি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। পরের দুই ম্যাচে উইকেট শিকার করতে না পারলেও বেশ ভালো বোলিং করেছেন মুস্তাফিজ।

তবে দিল্লির সর্বশেষ ম্যাচে দিল্লিকে হতাশ করেছেন মুস্তাফিজ। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে প্রথম তিন ওভারে ২০ রান খরচ করলেও নিজের শেষ ওভারে মুস্তাফিজ দেন ২৮ রান। এর ফলে ৪ ওভারে মুস্তাফিজ দিয়েছেন ৪৮ রান। দিল্লি ম্যাচটি হেরেছে ১৬ রান।

যদি মুস্তাফিজ ওই ওভারে ২৮ রান না দিতেন তাহলে হয়তো ম্যাচটি জিততে পারতো দিল্লি। মুস্তাফিজের ওই ওভারের প্রথম তিন বলে তিন চার, পরের দুই বলে দুই ছয় ও শেষ বলে চার হাঁকান দীনেশ কার্তিক। তার ৩৪ বলে ৬৬ রানের ইনিংসে ঘুরে যায় ম্যাচ।

মুস্তাফিকের ওই এক ওভারেই ম্যাচ বদলে গেছে বলে জানিয়েছেন দিল্লির অধিনায়ক রিশভ পান্ত। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, মোস্তাফিজের ওই ওভার ম্যাচ বদলে দিয়েছে। আমার ধারণা, আরেকটু পরিকল্পনা অনুযায়ী বল করতে পারতাম আমরা। কিন্তু শেষ দিকে দীনেশ কার্তিক আমাদের চাপে ফেলে দিয়েছিলেন। এর আগেও বলেছি, আমাদের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে হবে।

ব্যাঙ্গালুরুর দেওয়া ১৯০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রান করে দিল্লি। ডেভিড ওয়ার্নার ৩৮ বলে ৬৬, পান্ত ১৭ বলে ৩৪ রানের ইনিংস খেলেন। মাঝের ওভারগুলোতে আরও দায়িত্বশীল হওয়া প্রয়োজন ছিল বলে মনে করেন পান্ত।

তিনি বলেন, আমি মনে করি ওয়ার্নার ভালো ব্যাটিং করেছে এবং আমাদের ম্যাচ জেতার প্রতিটি করে সুযোগ দিয়েছিল। মার্শকে দোষ দেওয়া যায় না, এটি তার প্রথম ম্যাচ ছিল এবং কিছুটা কঠিন লাগছিল। মাঝের ওভারগুলোতে আমরা আরও ভালো করতে পারতাম। ইনিংস যত এগোতে থাকে উইকেট ততই ভালো হতে থাকে।

দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে এবারের আইপিএলে নিজের প্রথম ম্যাচে ২৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট শিকার করেছিলেন বাংলাদেশি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। পরের দুই ম্যাচে উইকেট শিকার করতে না পারলেও বেশ ভালো বোলিং করেছেন মুস্তাফিজ।

তবে দিল্লির সর্বশেষ ম্যাচে দিল্লিকে হতাশ করেছেন মুস্তাফিজ। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে প্রথম তিন ওভারে ২০ রান খরচ করলেও নিজের শেষ ওভারে মুস্তাফিজ দেন ২৮ রান। এর ফলে ৪ ওভারে মুস্তাফিজ দিয়েছেন ৪৮ রান। দিল্লি ম্যাচটি হেরেছে ১৬ রান।

যদি মুস্তাফিজ ওই ওভারে ২৮ রান না দিতেন তাহলে হয়তো ম্যাচটি জিততে পারতো দিল্লি। মুস্তাফিজের ওই ওভারের প্রথম তিন বলে তিন চার, পরের দুই বলে দুই ছয় ও শেষ বলে চার হাঁকান দীনেশ কার্তিক। তার ৩৪ বলে ৬৬ রানের ইনিংসে ঘুরে যায় ম্যাচ।

মুস্তাফিকের ওই এক ওভারেই ম্যাচ বদলে গেছে বলে জানিয়েছেন দিল্লির অধিনায়ক রিশভ পান্ত। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, মোস্তাফিজের ওই ওভার ম্যাচ বদলে দিয়েছে। আমার ধারণা, আরেকটু পরিকল্পনা অনুযায়ী বল করতে পারতাম আমরা। কিন্তু শেষ দিকে দীনেশ কার্তিক আমাদের চাপে ফেলে দিয়েছিলেন। এর আগেও বলেছি, আমাদের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে হবে।

ব্যাঙ্গালুরুর দেওয়া ১৯০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রান করে দিল্লি। ডেভিড ওয়ার্নার ৩৮ বলে ৬৬, পান্ত ১৭ বলে ৩৪ রানের ইনিংস খেলেন। মাঝের ওভারগুলোতে আরও দায়িত্বশীল হওয়া প্রয়োজন ছিল বলে মনে করেন পান্ত।

তিনি বলেন, আমি মনে করি ওয়ার্নার ভালো ব্যাটিং করেছে এবং আমাদের ম্যাচ জেতার প্রতিটি করে সুযোগ দিয়েছিল। মার্শকে দোষ দেওয়া যায় না, এটি তার প্রথম ম্যাচ ছিল এবং কিছুটা কঠিন লাগছিল। মাঝের ওভারগুলোতে আমরা আরও ভালো করতে পারতাম। ইনিংস যত এগোতে থাকে উইকেট ততই ভালো হতে থাকে।

About admin

Check Also

তামিম মিথ্যা কথা বলেছে -পাপন

বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা ওপেনার তামিম ইকবালের টি-২০ ক্যারিয়ারের ভবিষ্যত নিয়ে আলোচনা ও জটিলতা যেনো কিছুতেই …

Leave a Reply

Your email address will not be published.