মাত্র ৩৬ হাজার টাকায় সুপার ফাস্ট ইলেকট্রিক বাইক!

মোটরসাইকেলের চেয়েও দ্রুতগতির ইলেকট্রিক বাইক বাজারে এলো। সম্প্রতি ভারতের বাজারে এসেছে সুপার ই-বাইক। এগুলো এনেছে কাবরিয়া মোবিলিটি নামের একটি প্রতিষ্ঠান। মডেল কেএম৩০০০ এবং কেএম৪০০০।

হাইস্পিড ইলেকট্রিক বাইক দুইটির দাম যথাক্রমে ভারতে ৩৬ হাজার ৯৯০ রুপি এবং ২৬ হাজার ৯৯০ রুপি। ই-বাইক দুইটি ইকোনমি মোডে ১২০ কি.মি. ও স্পোর্টস মোডে ৯০ কি.মি. দূরত্ব পার করতে পারবে।

কেএম৪০০০ মডেলে ৪.৪ কিলোওয়াটের ব্যাটারি দেয়া হয়েছে। ইকোনমি মোডে এই মোটরসাইকেল ১৫০ কিমি যাবে। স্পোর্টস মোডে ৯০ কিমি। এই মোটরসাইকেলেরর গতি ঘণ্টায় ১২০ কি.মি.।

বলা হচ্ছে, এখনও পর্যন্ত ভারতে লঞ্চ হওয়া ইলেকট্রিক মোটরসাইকেল গুলোর মধ্যে এটিই ফাস্টেট। দুটি মডেলই ব্যবহৃত ব্যাটারি প্রায় তিন ঘণ্টায় ৮০ শতাংশ চার্জ হবে। বুস্ট চার্জে লাগবে ৫০ মিনিট। ইকো চার্জ মোডে সাড়ে ছয় ঘণ্টা সময় লাগবে।

মোটরসাইকেলের চেয়েও দ্রুতগতির ইলেকট্রিক বাইক বাজারে এলো। সম্প্রতি ভারতের বাজারে এসেছে সুপার ই-বাইক। এগুলো এনেছে কাবরিয়া মোবিলিটি নামের একটি প্রতিষ্ঠান। মডেল কেএম৩০০০ এবং কেএম৪০০০।

হাইস্পিড ইলেকট্রিক বাইক দুইটির দাম যথাক্রমে ভারতে ৩৬ হাজার ৯৯০ রুপি এবং ২৬ হাজার ৯৯০ রুপি। ই-বাইক দুইটি ইকোনমি মোডে ১২০ কি.মি. ও স্পোর্টস মোডে ৯০ কি.মি. দূরত্ব পার করতে পারবে।

কেএম৪০০০ মডেলে ৪.৪ কিলোওয়াটের ব্যাটারি দেয়া হয়েছে। ইকোনমি মোডে এই মোটরসাইকেল ১৫০ কিমি যাবে। স্পোর্টস মোডে ৯০ কিমি। এই মোটরসাইকেলেরর গতি ঘণ্টায় ১২০ কি.মি.।

বলা হচ্ছে, এখনও পর্যন্ত ভারতে লঞ্চ হওয়া ইলেকট্রিক মোটরসাইকেল গুলোর মধ্যে এটিই ফাস্টেট। দুটি মডেলই ব্যবহৃত ব্যাটারি প্রায় তিন ঘণ্টায় ৮০ শতাংশ চার্জ হবে। বুস্ট চার্জে লাগবে ৫০ মিনিট। ইকো চার্জ মোডে সাড়ে ছয় ঘণ্টা সময় লাগবে। তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট।

মোটরসাইকেলের চেয়েও দ্রুতগতির ইলেকট্রিক বাইক বাজারে এলো। সম্প্রতি ভারতের বাজারে এসেছে সুপার ই-বাইক। এগুলো এনেছে কাবরিয়া মোবিলিটি নামের একটি প্রতিষ্ঠান। মডেল কেএম৩০০০ এবং কেএম৪০০০।

হাইস্পিড ইলেকট্রিক বাইক দুইটির দাম যথাক্রমে ভারতে ৩৬ হাজার ৯৯০ রুপি এবং ২৬ হাজার ৯৯০ রুপি। ই-বাইক দুইটি ইকোনমি মোডে ১২০ কি.মি. ও স্পোর্টস মোডে ৯০ কি.মি. দূরত্ব পার করতে পারবে।

কেএম৪০০০ মডেলে ৪.৪ কিলোওয়াটের ব্যাটারি দেয়া হয়েছে। ইকোনমি মোডে এই মোটরসাইকেল ১৫০ কিমি যাবে। স্পোর্টস মোডে ৯০ কিমি। এই মোটরসাইকেলেরর গতি ঘণ্টায় ১২০ কি.মি.।

বলা হচ্ছে, এখনও পর্যন্ত ভারতে লঞ্চ হওয়া ইলেকট্রিক মোটরসাইকেল গুলোর মধ্যে এটিই ফাস্টেট। দুটি মডেলই ব্যবহৃত ব্যাটারি প্রায় তিন ঘণ্টায় ৮০ শতাংশ চার্জ হবে। বুস্ট চার্জে লাগবে ৫০ মিনিট। ইকো চার্জ মোডে সাড়ে ছয় ঘণ্টা সময় লাগবে।

মোটরসাইকেলের চেয়েও দ্রুতগতির ইলেকট্রিক বাইক বাজারে এলো। সম্প্রতি ভারতের বাজারে এসেছে সুপার ই-বাইক। এগুলো এনেছে কাবরিয়া মোবিলিটি নামের একটি প্রতিষ্ঠান। মডেল কেএম৩০০০ এবং কেএম৪০০০।

হাইস্পিড ইলেকট্রিক বাইক দুইটির দাম যথাক্রমে ভারতে ৩৬ হাজার ৯৯০ রুপি এবং ২৬ হাজার ৯৯০ রুপি। ই-বাইক দুইটি ইকোনমি মোডে ১২০ কি.মি. ও স্পোর্টস মোডে ৯০ কি.মি. দূরত্ব পার করতে পারবে।

কেএম৪০০০ মডেলে ৪.৪ কিলোওয়াটের ব্যাটারি দেয়া হয়েছে। ইকোনমি মোডে এই মোটরসাইকেল ১৫০ কিমি যাবে। স্পোর্টস মোডে ৯০ কিমি। এই মোটরসাইকেলেরর গতি ঘণ্টায় ১২০ কি.মি.।

বলা হচ্ছে, এখনও পর্যন্ত ভারতে লঞ্চ হওয়া ইলেকট্রিক মোটরসাইকেল গুলোর মধ্যে এটিই ফাস্টেট। দুটি মডেলই ব্যবহৃত ব্যাটারি প্রায় তিন ঘণ্টায় ৮০ শতাংশ চার্জ হবে। বুস্ট চার্জে লাগবে ৫০ মিনিট। ইকো চার্জ মোডে সাড়ে ছয় ঘণ্টা সময় লাগবে। তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট।

About admin

Check Also

প্রেমের টানে বরিশালে এসে মার খেলেন ভারতীয় যুবক

এবার প্রেমের টানে ভারতের দক্ষিণের রাজ্য তামিলনাড়ু থেকে বরিশালে এসে প্রেমিকার অপর প্রেমিকের কাছে মারধরের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.