লাঠি হাতে রাখা সুন্নত, সবার রাখা উচিত: মেয়র আরিফ

ডি.এইচ.মান্না (সিলেট প্রতিনিধি): শনিবার (২৩ এপ্রিল) সিলেটে সারাদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক সহ সর্বত্রই আলোচনায় ছিলেন সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। আলোচনা- সমালোচনার বিষয়বস্তু ছিল ‘একজন নিপীড়ক মেয়র এবং আমাদের বিবেক’। কিন্তু বাস্তবে কি ঘটেছিল সিলেটের জিন্দাবাজারে কেন মেয়র লাঠি হাতে নিয়েছেন তার বিস্তারিত ব্যাখ্যা দিয়েছেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

শনিবার (২৩ এপ্রিল) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ঘটনা নিয়ে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছেন মেয়র আরিফ। তিনি বলেন, আজকের যে বিষয়টি সকলের চোখে পড়েছে সেই ঘটনার সকল সিসি ফুটেজ চেক করুন তখন দেখতে পারেন আমি তাকে কি মেরেছি- না ধমক দিয়েছি।

তিনি বলেন, শহরের এই ব্যস্ততম রাস্তার যানজট নিরসনে আমি শ্রমিক নেতৃবৃন্দ এবং প্রশাসনের সাথে কথা বলেছি। আমরা সবাই মিলে সম্মেলিত প্রচেষ্টায় কমপক্ষে ঈদুল ফিতরের সময়টুকু হলেও এই রাস্তা টি খালি রাখবো যাতে আমাদের মা-বোনদের কেনাকাটায় কোন ধরনের সমস্যার সম্মুখিন না হতে হয়।

তিনি আরও বলেন, আমি জিন্দাবাজারের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনা করেছি যে আপনারা দোকানের মালামাল সকাল ১০ টার ভিতরে ভ্যান অথবা ঠেলা গাড়ির মাধ্যমে ঢুকাতে পারবেন এই সময়ের বাইরে নয় তারা আমাকে এই বিষয়ে যথেষ্ট সহযোগিতা করে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন আমি সবার সাথেই গাড়ি পার্কিং নিয়ে কঠোর ভাবে কথা বলছি তবে এটাও ঠিক যে আমি ধমকের স্বরে বলেছি। আমি সেই ব্যক্তিকে ধমকের স্বরে ‘এই’ বলতেই তিনি দু’হাত উপরে তুলে দাঁড়িয়ে ছিলেন। কিন্তু এটাকে কেউ কেউ বেত্রাঘাত বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করছেন যা বাস্তবের সাথে কোন মিল নেই।

তিনি বলেন আমি এখনও এত বিবেকহীন হয়নি, ধমক দিয়েছে এই কারণেই যাতে সে ধমকের সাথে এই জায়গা থেকে চলে যায়। আমি এই কাজগুলো জনগণের জানমালের নিরাপত্তার স্বার্থেই করছি। তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য বলেন আপনাই-তো লিখেন যে সময়ে শহরে চুরি- ছিনতাই বেড়ে গেছে। তিনি সকল সাংবাদিকদের সংবাদ প্রচারের পূর্বে তা যাচাই- বাঁচাই করার জন্য অনুরোধ করেন।

এসময় একজন সাংবাদিক তাকে প্রশ্ন করেন আপনার হাতে লাঠি কেন.? উত্তরে মেয়র আরিফ বলেন ‘লাঠি হাতে রাখা সুন্নত এটা সকলের রাখা উচিত ‘ আরেক সাংবাদিক তাকে বলেন আপনাকে আমরা ফোনে পাইনা! এর উত্তরে তিনি বলেন আমার মিনিটে ৫০টি ফোন আসে এর জন্যই আসলে সকলের সাথে কথা বলা আমার পক্ষে সম্ভব হয় না।

উল্লেখ্য, আজ সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী এক ভ্যানচালককে বেত্রাঘাত করছেন এমন একটি ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়। ছবিটিতে দেখা যায়, নগরীর জিন্দাবাজার আল হামরা শপিং সিটির সামনের রাস্তায় এক ভ্যানচালককে বেত্রাঘাত করছেন মেয়র আরিফ। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিন্দার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন নাগরিক সমাজের কেউ কেউ।

About admin

Check Also

লুঙ্গি ধরে টান দেয়ায় শ্যালিকাকে মেরে ঝুলিয়ে রাখে নতুন দুলাভাই

এবার কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীর রাখানায় খুশি হত্যা ঘটনায় নতুন বর (জেঠাতো বোনের স্বামী) আব্দুল গনিকে গ্রেপ্তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.