জয়া আহসানকে চিনতে না পেরে পঁচা মাছ ধরিয়ে দিলো দোকানদার

ইরানি নির্মাতা মুর্তজা অতাশ জমজম। ‘ফেরেশতে’ নামের নতুন একটি সিনেমা তিনি নির্মাণ করছেন। এতে অভিনয় করছেন দুই বাংলার নন্দিত অভিনেত্রী জয়া আহসান। এরইমধ্যে কিছু ছবি ও তথ্য প্রকাশ পেয়ে গেলেও আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি ছবির সংশ্লিষ্টরা।

শনিবার রাতে (২৩ জানুয়ারি) রাজধানীর একটি রেস্তোরাঁয় অনুষ্ঠিত হয় সিনেমাটি সংবাদ সম্মেলন। সেখানে জানানো হয়, ‘ফেরেশতে’ সিনেমাটি ইরানি, তবে এটি দৃশ্যায়তি হচ্ছে বাংলা ভাষায়সিনেমাটি নিয়ে জয়া আহসান বেশ তৃপ্ত মনে কাজ করে যাচ্ছেন। সিনেমাটিকে নিজের ক্যারিয়ারের জন্যও বিশেষ বলে মনে করছেন তিনি

রাজধানীর র’ লোকেশনে হয়েছে ‘ফেরেশতে’ ছবির শুটিং। ব্যস্ত নিউ মার্কেট এলাকায়, কাওরান বাজার কিংবা শাহবাগ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অঞ্চলে গেল পহেলা বৈশাখে হাজার হাজার মানুষের ভিড়ে শুটিং হয়েছে এই ছবির।

লাইভ লোকেশনে সিনেমার শুটিং অভিজ্ঞতা জানতে চাইলে জয়া আহসান বলেন, ‘ফেরেশতে’র শুটিং করতে গিয়ে দারুণ অভিজ্ঞতার সম্মুখিন হয়েছি। বেশকিছু মজার ঘটনাও ঘটেছে। এই সিনেমায় আমার বেশভূষা নিশ্চয় দেখেছেন সবাই। সেই কস্টিউমে রাস্তায় নেমে যখন শুটিং করেছি, ভিক্ষুকরা আমার আশপাশের সবার কাছে ভিক্ষা চাইলেও আমার বেশভূষা দেখে কেউ পয়সা চায়নি।’

পহেলা বৈশাখেও শুটিং হয়েছে এই সিনেমার। সেই অভিজ্ঞতা জানিয়ে জয়া বলেন, ‘পহেলা বৈশাখে হাজার হাজার মানুষের ভিড়ে শুটিং করেছি, কেউ চিনতে পারেনি। এরকম বেশকিছু মজার অভিজ্ঞতা সঞ্চিত হয়েছে।

এরমধ্যে আরেকটি ঘটনা হয়েছে কাওরান বাজারে শুটিংয়ের সময়। এতো সাদামাটা পোশাক পরে এদিন শুটিং করেছি যে, মাছের দোকানে যাওয়ার পর দোকানদাররা আমাকে পঁচা মাছ গছিয়ে দিচ্ছিলো। এক দোকানদারতো ৫০ টাকায় পঁচা মাছ দিয়ে বলছিলো, ‘নিয়া যান আফা!’

তবে সিনেমাটিতে নিজের চরিত্রটি নিয়ে বিস্তারিত কিছু বলতে চাননি এই অভিনেত্রী। শুধু জানিয়েছেন, সমাজে সবার খুব কাছের- এমন একটি চরিত্রে তিনি অভিনয় করেছেন। যে চরিত্রের সঙ্গে দর্শক খুব সহজে সংযোগ স্থাপন করতে পারবেন।

বাংলাদেশ ও ইরানের যৌথ প্রযোজনার সিনেমাটিতে আরও অভিনয় করছেন রিকিতা নন্দীনি শিমু, সুমন ফারুকসহ অনেকে। তারাও সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।চলতি সপ্তাহে সিনেমাটির শুটিং সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে।

‘ফেরেশতে’ কোথায় কবে মুক্তি পাবে? এমন প্রশ্নে নির্মাতা জানান, প্রথমে সিনেমাটি বিভিন্ন চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানো হবে। বিশেষ করে ইরানের নামকরা উৎসব ‘ফজর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’ এ দেখানো নির্মাতার প্রধান টার্গেট। এরপর দুই দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির কথাও জানালেন অতাশ জমজম।

এরমধ্যে আরেকটি ঘটনা হয়েছে কাওরান বাজারে শুটিংয়ের সময়। এতো সাদামাটা পোশাক পরে এদিন শুটিং করেছি যে, মাছের দোকানে যাওয়ার পর দোকানদাররা আমাকে পঁচা মাছ গছিয়ে দিচ্ছিলো। এক দোকানদারতো ৫০ টাকায় পঁচা মাছ দিয়ে বলছিলো, ‘নিয়া যান আফা!’

About admin

Check Also

ইমরানের নকল গোঁফ গোপনাঙ্গের চুল নয় তো: নার্গিস

‘আজহার’ ছবির শ্যুট চলার সময় নার্গিস ফকরির সঙ্গে চুমু খাওয়ার দৃশ্য। নার্গিসকে চুম্বনরত ইমরানপরিচালক কাট …

Leave a Reply

Your email address will not be published.