আমি যখন ব্যাটিংয়ে যাই, মাথায় রাখি যে দল আমার কাছে অনেক কিছু চায় : লিটন দাস

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর দুর্দান্ত ছন্দ রয়েছেন জাতীয় দলের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান লিটন দাস। বিশেষ করে টেস্ট ক্রিকেটে দেশের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সবচেয়ে ভালো ফর্মে রয়েছেন তিনি। লিটন বুঝতে পেরেছেন তিনি দলের এখন একজন গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার।

দলের সাফল্য অনেকটাই তার উপর নির্ভর করে। যে কারণে নিজেকে বদলে কঠোর পরিশ্রমই হয়েছেন লিটন দাস। যার ফলাফল তিনি পাচ্ছেন হাতেনাতেই। চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ৮৮ রান করেছেন লিটন দাস।

আজ পঞ্চম দিনের খেলা শুরু হওয়ার আগে সাক্ষাৎকারে লিটন দাস বলেন, “পরিশ্রমের জায়গাটাও অনেক। কারণ, এরকম কন্ডিশনে ১৬০ ওভারের মতো কিপিং করা, আলাদা চ্যালেঞ্জ থাকে এই প্রচণ্ড গরমে, এরপর ব্যাটিংয়ের দায়িত্ব তো আছেই, দল এখন আমার কাছে রান চায়।”

সেই সাথে প্রচন্ড এই গরমে প্রথম ইনিংসে উইকেটকিপিং করেছেন তিনি। টেস্ট ক্রিকেটে দুইদিন উইকেটকিপিং করে ব্যাটিং করাটা অনেকটাই কষ্টকর। কিন্তু দল যে তার কাছ থেকে এখন রান চান সেটি তিনি বুঝতে পেরেছেন।

“আমার কাছে মনে হয়, দুটিই কষ্টকর। তবে আমি যখন ব্যাটিংয়ে যাই, মাথায় রাখি যে দল আমার কাছে অনেক কিছু চায়। এটা আমাকে আত্মবিশ্বাস দেয় যে দল আমাকে মূল্যবান ক্রিকেটার মনে করে। চেষ্টা করি দলকে কিছু দেওয়ার।”

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর দুর্দান্ত ছন্দ রয়েছেন জাতীয় দলের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান লিটন দাস। বিশেষ করে টেস্ট ক্রিকেটে দেশের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সবচেয়ে ভালো ফর্মে রয়েছেন তিনি। লিটন বুঝতে পেরেছেন তিনি দলের এখন একজন গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার।

দলের সাফল্য অনেকটাই তার উপর নির্ভর করে। যে কারণে নিজেকে বদলে কঠোর পরিশ্রমই হয়েছেন লিটন দাস। যার ফলাফল তিনি পাচ্ছেন হাতেনাতেই। চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ৮৮ রান করেছেন লিটন দাস।

আজ পঞ্চম দিনের খেলা শুরু হওয়ার আগে সাক্ষাৎকারে লিটন দাস বলেন, “পরিশ্রমের জায়গাটাও অনেক। কারণ, এরকম কন্ডিশনে ১৬০ ওভারের মতো কিপিং করা, আলাদা চ্যালেঞ্জ থাকে এই প্রচণ্ড গরমে, এরপর ব্যাটিংয়ের দায়িত্ব তো আছেই, দল এখন আমার কাছে রান চায়।”

সেই সাথে প্রচন্ড এই গরমে প্রথম ইনিংসে উইকেটকিপিং করেছেন তিনি। টেস্ট ক্রিকেটে দুইদিন উইকেটকিপিং করে ব্যাটিং করাটা অনেকটাই কষ্টকর। কিন্তু দল যে তার কাছ থেকে এখন রান চান সেটি তিনি বুঝতে পেরেছেন।

“আমার কাছে মনে হয়, দুটিই কষ্টকর। তবে আমি যখন ব্যাটিংয়ে যাই, মাথায় রাখি যে দল আমার কাছে অনেক কিছু চায়। এটা আমাকে আত্মবিশ্বাস দেয় যে দল আমাকে মূল্যবান ক্রিকেটার মনে করে। চেষ্টা করি দলকে কিছু দেওয়ার।”

About admin

Check Also

বাংলাদেশের হারে ইমরুলের ‘মুচকি হাসি’, পরে বললেন ‘পেইজ হ্যাকড হয়েছিল’!

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে অবিশ্বাস্য ব্যর্থতা। তবে সেই ভুলের গন্ডি থেকে বেড়িয়ে ওয়ানডে সিরিজে ঘুরে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.