আমি বেঁচে আছি: হানিফ সংকেত

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অনেকেই লিখছেন সড়ক দুর্ঘটনায় হানিফ সংকেত মারা গেছেন। তবে হানিফ সংকেত নিজেই বলেছেন, আমি মরিনি, বেঁচে আছি।, তিনি আরও বলেন, ‘গুজবটি যারা ছড়াচ্ছেন তারা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কাজটি করছেন। এটা নিঃসন্দেহে অনৈতিক কাজ। এভাবে মানুষজনকে আতঙ্কের মাঝে ফেলার কোনো মানে হয় না।’

এর আগে মঙ্গলবার (২৪ মে) রাত থেকে এমনই খবর ছড়ানো হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ফেসবুকের এসব পোস্ট দেখে বিচলিত গুণী মিডিয়া ব্যক্তিত্ব হানিফ সংকেতের কোটি ভক্ত।

এর মধ্যে বুধবার (২৫ মে) সকালে তার পরিবারের একজন সদস্য জানিয়েছেন, কোনো দুর্ঘটনাই ঘটেনি। তিনি সুস্থ আছেন।তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানো খবর একেবারেই ভুয়া। কোনো ধরনের দুর্ঘটনাই ঘটেনি। হানিফ সংকেত সুস্থ আছেন।’

প্রসঙ্গত, হানিফ সংকেত দেশের বিনোদন অঙ্গনের অন্যতম জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব। আশির দশক থেকে শুরু করে প্রায় দুই যুগ ধরে তিনি বাংলাদেশের দর্শদের জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদি এর মাধ্যমে আনন্দ দিয়ে যাচ্ছেন। একাধারে তিনি উপস্থাপক, পরিচালক, লেখক ও প্রযোজক।

প্রয়াত ফজলে লোহানীর যদি কিছু মনে না করেন ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানে তিনি প্রথম খ্যাতি লাভ করেন। তবে তিনি কেবল হাস্যরসকে তুলে ধরেন না। বিভিন্ন সামাজিক অসঙ্গতি, অফিস-আদালতের দুর্নীতির বিপরীতে এবং মানবিকতার পক্ষে তার কার্যক্রম চলে। তার ইত্যাদি নামক ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় টিভি অনুষ্ঠান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অনেকেই লিখছেন সড়ক দুর্ঘটনায় হানিফ সংকেত মারা গেছেন। তবে হানিফ সংকেত নিজেই বলেছেন, আমি মরিনি, বেঁচে আছি।, তিনি আরও বলেন, ‘গুজবটি যারা ছড়াচ্ছেন তারা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কাজটি করছেন। এটা নিঃসন্দেহে অনৈতিক কাজ। এভাবে মানুষজনকে আতঙ্কের মাঝে ফেলার কোনো মানে হয় না।’

এর আগে মঙ্গলবার (২৪ মে) রাত থেকে এমনই খবর ছড়ানো হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ফেসবুকের এসব পোস্ট দেখে বিচলিত গুণী মিডিয়া ব্যক্তিত্ব হানিফ সংকেতের কোটি ভক্ত।

এর মধ্যে বুধবার (২৫ মে) সকালে তার পরিবারের একজন সদস্য জানিয়েছেন, কোনো দুর্ঘটনাই ঘটেনি। তিনি সুস্থ আছেন।তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানো খবর একেবারেই ভুয়া। কোনো ধরনের দুর্ঘটনাই ঘটেনি। হানিফ সংকেত সুস্থ আছেন।’

প্রসঙ্গত, হানিফ সংকেত দেশের বিনোদন অঙ্গনের অন্যতম জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব। আশির দশক থেকে শুরু করে প্রায় দুই যুগ ধরে তিনি বাংলাদেশের দর্শদের জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদি এর মাধ্যমে আনন্দ দিয়ে যাচ্ছেন। একাধারে তিনি উপস্থাপক, পরিচালক, লেখক ও প্রযোজক।

প্রয়াত ফজলে লোহানীর যদি কিছু মনে না করেন ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানে তিনি প্রথম খ্যাতি লাভ করেন। তবে তিনি কেবল হাস্যরসকে তুলে ধরেন না। বিভিন্ন সামাজিক অসঙ্গতি, অফিস-আদালতের দুর্নীতির বিপরীতে এবং মানবিকতার পক্ষে তার কার্যক্রম চলে। তার ইত্যাদি নামক ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় টিভি অনুষ্ঠান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অনেকেই লিখছেন সড়ক দুর্ঘটনায় হানিফ সংকেত মারা গেছেন। তবে হানিফ সংকেত নিজেই বলেছেন, আমি মরিনি, বেঁচে আছি।, তিনি আরও বলেন, ‘গুজবটি যারা ছড়াচ্ছেন তারা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কাজটি করছেন। এটা নিঃসন্দেহে অনৈতিক কাজ। এভাবে মানুষজনকে আতঙ্কের মাঝে ফেলার কোনো মানে হয় না।’

এর আগে মঙ্গলবার (২৪ মে) রাত থেকে এমনই খবর ছড়ানো হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ফেসবুকের এসব পোস্ট দেখে বিচলিত গুণী মিডিয়া ব্যক্তিত্ব হানিফ সংকেতের কোটি ভক্ত।

এর মধ্যে বুধবার (২৫ মে) সকালে তার পরিবারের একজন সদস্য জানিয়েছেন, কোনো দুর্ঘটনাই ঘটেনি। তিনি সুস্থ আছেন।তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানো খবর একেবারেই ভুয়া। কোনো ধরনের দুর্ঘটনাই ঘটেনি। হানিফ সংকেত সুস্থ আছেন।

About admin

Check Also

তেল দিয়ে মাছ ধরে ইন্টারনেটে ব্যাপক সাড়া যুবক!বর্তমানে অনলাইন কাঁপাচ্ছে ভিডিওটি

বাইন, বাইম, বান। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, নেপাল, মায়ানমার, থাইল্যান্ড ও দক্ষিণ চীনে এই মাছ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.