মিথিলার সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন জন

জন কবির ও অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলার সম্পর্ক নিয়ে নানান কথা শোনা যায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদেরকে নিয়ে অনেক মুখরোচক চর্চা হতে দেখা গেছে। প্রায় চার বছর আগে মিথিলার সঙ্গে জনের পোস্ট করা একটি ছবি ভাইরাল হয়েছিল। সেখানে অজস্র মন্তব্য করেন নেটজনতা, যার বেশির ভাগই ছিল কুরুচিপূর্ণ এবং আপত্তিকর ইঙ্গিতপূর্ণ। সে সময় ছবিটিকে কেন্দ্র করে কম চর্চা হয়নি।

জন-মিথিলা শুধুই বন্ধু নাকি তাদের মধ্যে এর চেয়ে গভীর কোনো সম্পর্ক ছিল, এটার জবাব তারা দু’জনেই একাধিকবার স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছেন। এবার বিবিসির মুখোমুখি হয়ে বিষয়টি নিয়ে খোলাখুলি কথা বলেছেন জন।

জন বললেন, মিথিলা আমার কি রকম বন্ধু, সেটি আমার আব্বু (এখন বেঁচে নেই), আম্মু সবাই জানে। সম্পর্কের গুঞ্জনের ব্যাপারটা শুনে আমার আম্মু সবচেয়ে অবাক হয়েছিলেন।

তিনি বলতেন, মানুষের কি মাথা খারাপ হয়ে গেছে! তখন আমি আম্মুকে বুঝিয়ে বলতাম— মানুষ তো আমাদের পারসোনালি চেনে না। তাই এ রকম গল্প ছড়ায়। আসলে মানুষ গল্প বানাতে খুব পছন্দ করে।

এমন সব গুঞ্জনকে পাত্তা দেন না মন্তব্য করে জন কবির বলেন, ‘মিথিলার সঙ্গে বন্ধুত্বটা কিন্তু তাহসানের মাধ্যমেই। যারা মিথিলার সঙ্গে আমার সম্পর্কের কথা ভাবেন, তারা হয়তো এটা ভেবেই মজা পান। কিন্তু সেটিকে আমাদের ওপর চাপিয়ে দেওয়াটা সমস্যা। আমি তো জানি, আমার জীবনটা আমি যাপন করছি,

মিথিলা তার জীবন। আপনাদের কথায় তো আমাদের জীবন পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে না। আপনারা যদি এসব গুঞ্জন ছড়িয়ে মজা পান, সেটা আপনাদের জন্য ভালো। কিন্তু আমাদের এতে কিছুই আসে-যায় না। কারণ আমি, মিথিলা তাহসান ভালো করেই জানি, আমরা কেমন।

এর পরও ঘুরেফিরেই সেই প্রশ্নটা আসে— কেন ব্ল্যাক ছেড়েছিলেন জন কবির? জবাবে তাহসানের সঙ্গে দ্বন্দ্ব তৈরির বিষয়টি স্বীকার করেন জন। সে কারণেই ব্ল্যাক ছাড়েন বলে জানান এ মিউজিশিয়ান।

প্রসঙ্গত, সংগীত তারকা তাহসান ও মিথিলা ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন ২০০৬ সালে। দীর্ঘ ১১ বছরের সংসারে ইতি টেনে ২০১৭ সালে তারা বিবাহবিচ্ছেদ করেন। এরপর ২০১৯ সালে ভারতের নির্মাতা সৃজিত মুখার্জিকে বিয়ে করেছেন মিথিলা। বর্তমানে তার সঙ্গেই সুখে সংসার করছেন অভিনেত্রী। অন্যদিকে তাহসান বর্তমানে সিঙ্গেল রয়েছেন।

জন কবির ও অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলার সম্পর্ক নিয়ে নানান কথা শোনা যায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদেরকে নিয়ে অনেক মুখরোচক চর্চা হতে দেখা গেছে। প্রায় চার বছর আগে মিথিলার সঙ্গে জনের পোস্ট করা একটি ছবি ভাইরাল হয়েছিল। সেখানে অজস্র মন্তব্য করেন নেটজনতা, যার বেশির ভাগই ছিল কুরুচিপূর্ণ এবং আপত্তিকর ইঙ্গিতপূর্ণ। সে সময় ছবিটিকে কেন্দ্র করে কম চর্চা হয়নি।

জন-মিথিলা শুধুই বন্ধু নাকি তাদের মধ্যে এর চেয়ে গভীর কোনো সম্পর্ক ছিল, এটার জবাব তারা দু’জনেই একাধিকবার স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছেন। এবার বিবিসির মুখোমুখি হয়ে বিষয়টি নিয়ে খোলাখুলি কথা বলেছেন জন।

জন বললেন, মিথিলা আমার কি রকম বন্ধু, সেটি আমার আব্বু (এখন বেঁচে নেই), আম্মু সবাই জানে। সম্পর্কের গুঞ্জনের ব্যাপারটা শুনে আমার আম্মু সবচেয়ে অবাক হয়েছিলেন।

তিনি বলতেন, মানুষের কি মাথা খারাপ হয়ে গেছে! তখন আমি আম্মুকে বুঝিয়ে বলতাম— মানুষ তো আমাদের পারসোনালি চেনে না। তাই এ রকম গল্প ছড়ায়। আসলে মানুষ গল্প বানাতে খুব পছন্দ করে।

এমন সব গুঞ্জনকে পাত্তা দেন না মন্তব্য করে জন কবির বলেন, ‘মিথিলার সঙ্গে বন্ধুত্বটা কিন্তু তাহসানের মাধ্যমেই। যারা মিথিলার সঙ্গে আমার সম্পর্কের কথা ভাবেন, তারা হয়তো এটা ভেবেই মজা পান। কিন্তু সেটিকে আমাদের ওপর চাপিয়ে দেওয়াটা সমস্যা। আমি তো জানি, আমার জীবনটা আমি যাপন করছি,

মিথিলা তার জীবন। আপনাদের কথায় তো আমাদের জীবন পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে না। আপনারা যদি এসব গুঞ্জন ছড়িয়ে মজা পান, সেটা আপনাদের জন্য ভালো। কিন্তু আমাদের এতে কিছুই আসে-যায় না। কারণ আমি, মিথিলা তাহসান ভালো করেই জানি, আমরা কেমন।

এর পরও ঘুরেফিরেই সেই প্রশ্নটা আসে— কেন ব্ল্যাক ছেড়েছিলেন জন কবির? জবাবে তাহসানের সঙ্গে দ্বন্দ্ব তৈরির বিষয়টি স্বীকার করেন জন। সে কারণেই ব্ল্যাক ছাড়েন বলে জানান এ মিউজিশিয়ান।

প্রসঙ্গত, সংগীত তারকা তাহসান ও মিথিলা ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন ২০০৬ সালে। দীর্ঘ ১১ বছরের সংসারে ইতি টেনে ২০১৭ সালে তারা বিবাহবিচ্ছেদ করেন। এরপর ২০১৯ সালে ভারতের নির্মাতা সৃজিত মুখার্জিকে বিয়ে করেছেন মিথিলা। বর্তমানে তার সঙ্গেই সুখে সংসার করছেন অভিনেত্রী। অন্যদিকে তাহসান বর্তমানে সিঙ্গেল রয়েছেন।

About admin

Check Also

প্রায় ৩৩ বছর ধরে নিজের বাড়ি মনে করে স্বেচ্ছাশ্রম দিয়ে সমগ্র রায়গঞ্জ শহরকে পরিচ্ছন্ন করেন এই বৃদ্ধ!

আমাদের আশেপাশের পরিবেশের চোখ রাখলে আপনারা এমন অনেক ব্যক্তি দেখতে পারবেন যারা ক্রমাগত পরিবেশকে নানান …

Leave a Reply

Your email address will not be published.