রাস্তা মেরামতে মাটির ডালি মাথায় নিলেন নতুন চেয়ারম্যান, ভাসছেন প্রশংসায়

আমাদের দেশে ভোটের আগে অনেক প্রার্থীরা বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে থাকেন। তবে বাস্তবে রূপান্তরিত হয় খুব কম। কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নের জনসাধারণের চলাচলের দুর্ভোগ লাঘবে নির্মাণাধীন সেতুর বিকল্প রাস্তা সংস্কার কাজে মাটির ডালি মাথায় নিয়ে অংশ নিয়েছেন সদ্য নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান।

শনিবার (০৪ ডিসেম্বর) দুপুরে পাঁচগাছী ইউনিয়নের কুড়িগ্রাম-যাত্রাপুর সড়কের শুলকুর বাজার এলাকায় এ ঘটনার জন্য এলাকায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছেন নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান মো. আব্দুল বাতেন সরকার।

স্থানীয়রা জানান, শুলকুর বাজার এলাকায় নির্মাণাধীন সেতুর বিকল্প রাস্তা ভেঙে যাওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়ে পার্শ্ববর্তী ৫টি ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ। প্রতিদিনে তাদের দুর্ভোগ দেখে চরমনাই পীর মনোনীত ওই ইউনিয়নের নব নির্বাচিত চেয়্যারম্যান মো. আব্দুল বাতেন সরকার নেতাকর্মীদের নিয়ে নিজেই মাটি কাটার কাজে নেমে পড়েন। দীর্ঘক্ষণ ধরে অক্লান্ত পরিশ্রমের পর অবশেষে রাস্তাটি চলাচলের উপযোগী করেন তিনি।

নব নির্বাচিত (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. আব্দুল বাতেন সরকার জানান, দীর্ঘদিনেও সেতুর কাজ শেষ না হওয়ায় এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াতকারী লোকজনের খুবই কষ্ট হচ্ছিল। তাই আমার সহযোগী ভাইদের সঙ্গে নিয়ে নিজেদের শ্রমে রাস্তাটি চলাচলের উপযোগী করে দিয়েছি।

রিকশাচালক নুরুল ইসলাম জানান, এই সড়ক দিয়ে চলাচলে ৫ ইউনিয়নের লোকজনকে নানা দুর্ভোগ পোহানো লাগতো। রিকশাসহ রোকজন পার গতেন নৌকায় করে। নতুন চেয়ারম্যান মানুষের কষ্টের কথা চিন্তা করে যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা মানুষ শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করবে।

আমাদের দেশে ভোটের আগে অনেক প্রার্থীরা বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে থাকেন। তবে বাস্তবে রূপান্তরিত হয় খুব কম। কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নের জনসাধারণের চলাচলের দুর্ভোগ লাঘবে নির্মাণাধীন সেতুর বিকল্প রাস্তা সংস্কার কাজে মাটির ডালি মাথায় নিয়ে অংশ নিয়েছেন সদ্য নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান।

শনিবার (০৪ ডিসেম্বর) দুপুরে পাঁচগাছী ইউনিয়নের কুড়িগ্রাম-যাত্রাপুর সড়কের শুলকুর বাজার এলাকায় এ ঘটনার জন্য এলাকায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছেন নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান মো. আব্দুল বাতেন সরকার।

স্থানীয়রা জানান, শুলকুর বাজার এলাকায় নির্মাণাধীন সেতুর বিকল্প রাস্তা ভেঙে যাওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়ে পার্শ্ববর্তী ৫টি ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ। প্রতিদিনে তাদের দুর্ভোগ দেখে চরমনাই পীর মনোনীত ওই ইউনিয়নের নব নির্বাচিত চেয়্যারম্যান মো. আব্দুল বাতেন সরকার নেতাকর্মীদের নিয়ে নিজেই মাটি কাটার কাজে নেমে পড়েন। দীর্ঘক্ষণ ধরে অক্লান্ত পরিশ্রমের পর অবশেষে রাস্তাটি চলাচলের উপযোগী করেন তিনি।

নব নির্বাচিত (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. আব্দুল বাতেন সরকার জানান, দীর্ঘদিনেও সেতুর কাজ শেষ না হওয়ায় এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াতকারী লোকজনের খুবই কষ্ট হচ্ছিল। তাই আমার সহযোগী ভাইদের সঙ্গে নিয়ে নিজেদের শ্রমে রাস্তাটি চলাচলের উপযোগী করে দিয়েছি।

রিকশাচালক নুরুল ইসলাম জানান, এই সড়ক দিয়ে চলাচলে ৫ ইউনিয়নের লোকজনকে নানা দুর্ভোগ পোহানো লাগতো। রিকশাসহ রোকজন পার গতেন নৌকায় করে। নতুন চেয়ারম্যান মানুষের কষ্টের কথা চিন্তা করে যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা মানুষ শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করবে।

About admin

Check Also

সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের টাকার বিষয়ে সরকার কোনো তথ্য চায়নি: সুইস রাষ্ট্রদূত

এবার বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি চুয়ার্ড বলেছেন, সুইস ব্যাংকের কাছে অর্থ জমা নিয়ে সুইজারল্যান্ড …

Leave a Reply

Your email address will not be published.