রাণীনগরে শিক্ষক-ছাত্রীর অনৈতিক ভিডিও ভাইরাল, তোলপাড় নেট দুনিয়া

রাণীনগরে শিক্ষক-ছাত্রীর অনৈতিক কর্মকাণ্ডের ভিডিও ভাইরাল -নওগাঁর রাণীনগর উপজেলা সদরের একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী গ্রন্থাগারিক সাদেকুল ইসলাম পিটুর এক ছাত্রীর সাথে অনৈতিক কর্মকাণ্ডের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে।

শনিবার দুপুর থেকে ফেসবুক পেজ ও ম্যাসেঞ্জারে ওই ভিডিও ছড়িয়ে পড়তে থাকে। পিটু ওই ছাত্রীর প্রাইভেট শিক্ষক।এ ঘটনার পর গ্রন্থাগারিক পিটুকে চাকরিচ্যুতসহ তার শাস্তির দাবি করেছেন এলাকাবাসী।

জানা গেছে, উপজেলার বেলোবাড়ি গ্রামের মৃত আসরত আলী মিনারের ছেলে সাদেকুল ইসলাম পিটু সদরের একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী গ্রন্থাগারিক হিসেবে কর্মরত আছেন। একইসাথে তিনি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ান।

এই সুযোগে প্রায় এক বছর আগে সদরের একটি প্রাইভেট সেন্টারে এক ছাত্রীর সাথে অনৈতিক সর্ম্পকে জড়িয়ে পরেন তিনি। একপর্যায়ে পিটু প্রাইভেট সেন্টারে ওই শিক্ষার্থীর সাথে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হন। এমন দৃশ্য গোপন ক্যামেরায় ভিডিও রেকর্ড হয়।

স্থানীয়রা বলছেন, যদিও এমন ঘটনার কথা অন্তত এক বছর আগে শুনেছেন। কিন্তু এতো দিন পর হঠাৎ করেই গত শনিবার দুপুর থেকে ভিডিওটি ফেসবুকে ভাইরাল হতে থাকে। চার মিনিট ১০ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটি এখন এলাকার সবার মোবাইলে ছড়িয়ে পড়েছে।

কেউ ম্যাসেঞ্জারে, আবার কেউ ফেসবুক থেকে ডাউনলোড করেছেন। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় ব্যপক তোলপার সৃষ্টি হয়েছে। এতে ছাত্রী ও তার পরিবার বেশ অস্বস্তিতে পড়েছে।গ্রন্থাগারিক পিটুকে চাকরি থেকে বহিষ্কারসহ গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি তোলা হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।এ ব্যাপারে পিটুর সাথে যোগযোগ করার চেষ্টা করে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, এমন ঘটনা কানা-কানি হলে ওই ছাত্রী এক বছর আগে বিদ্যালয় থেকে টিসি নিয়ে চলে গেছে। ঘটনাটি নতুন করে না কি আবারো ছড়িয়ে পড়েছে। এমন কথা লোক মুখে শুনেছি। তিনি বলেন, ঘটনাটি আমার বিদ্যালয়ে নয়। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার মাহাতো বলেন, এ ব্যাপারে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেছি। যদি তারা ব্যবস্থা না নেন, তাহলে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বলে ব্যবস্থা নিবো।

জানা গেছে, উপজেলার বেলোবাড়ি গ্রামের মৃত আসরত আলী মিনারের ছেলে সাদেকুল ইসলাম পিটু সদরের একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী গ্রন্থাগারিক হিসেবে কর্মরত আছেন। একইসাথে তিনি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ান।

এই সুযোগে প্রায় এক বছর আগে সদরের একটি প্রাইভেট সেন্টারে এক ছাত্রীর সাথে অনৈতিক সর্ম্পকে জড়িয়ে পরেন তিনি। একপর্যায়ে পিটু প্রাইভেট সেন্টারে ওই শিক্ষার্থীর সাথে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হন। এমন দৃশ্য গোপন ক্যামেরায় ভিডিও রেকর্ড হয়।

স্থানীয়রা বলছেন, যদিও এমন ঘটনার কথা অন্তত এক বছর আগে শুনেছেন। কিন্তু এতো দিন পর হঠাৎ করেই গত শনিবার দুপুর থেকে ভিডিওটি ফেসবুকে ভাইরাল হতে থাকে। চার মিনিট ১০ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটি এখন এলাকার সবার মোবাইলে ছড়িয়ে পড়েছে।

কেউ ম্যাসেঞ্জারে, আবার কেউ ফেসবুক থেকে ডাউনলোড করেছেন। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় ব্যপক তোলপার সৃষ্টি হয়েছে। এতে ছাত্রী ও তার পরিবার বেশ অস্বস্তিতে পড়েছে।গ্রন্থাগারিক পিটুকে চাকরি থেকে বহিষ্কারসহ গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি তোলা হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।এ ব্যাপারে পিটুর সাথে যোগযোগ করার চেষ্টা করে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, এমন ঘটনা কানা-কানি হলে ওই ছাত্রী এক বছর আগে বিদ্যালয় থেকে টিসি নিয়ে চলে গেছে। ঘটনাটি নতুন করে না কি আবারো ছড়িয়ে পড়েছে। এমন কথা লোক মুখে শুনেছি। তিনি বলেন, ঘটনাটি আমার বিদ্যালয়ে নয়। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

About admin

Check Also

লুঙ্গি ধরে টান দেয়ায় শ্যালিকাকে মেরে ঝুলিয়ে রাখে নতুন দুলাভাই

এবার কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীর রাখানায় খুশি হত্যা ঘটনায় নতুন বর (জেঠাতো বোনের স্বামী) আব্দুল গনিকে গ্রেপ্তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.