সবাই এগিয়ে আসুন, আপনার একটু সহযোগিতা হয়তো বাঁচিয়ে দিতে পারে একটি প্রাণ: মাশরাফি

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে কনটেইনারের ডিপোতে লাগা আগুনে বাড়ছে লাশের সারি। প্রায় ২২ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে এসেছে আগুন। ধ্বংসস্তূপ থেকে একের পর এক লাশ বের করে আনছেন উদ্ধারকর্মীরা, গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হচ্ছে আরও অনেককে।

এরই মধ্যে ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট একসঙ্গে কাজ করছে সেখানে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে যোগ দিয়েছে সেনাবাহিনীও। বাড়ছে হতাহতের সংখ্যা ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ। এমতাবস্থায় দেশের মানুষকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় ক্রিকেটাররা।

এদিকে নিজের ফেসবুক পেজে সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা লিখেছেন, ‘চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনারের ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি এবং যারা আহত হয়েছেন তাদের প্রতি রইল সমমর্মিতা।’

তিনি লিখেন, ‘আমি চট্টগ্রামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ও সাধারণ মানুষদের অনুরোধ করি যেন হতাহতদের সাহায্যে এগিয়ে আসে। শুনেছি প্রচুর রক্তের প্রয়োজন। সবাই এগিয়ে আসুন। আপনার একটু সহযোগিতা, এক ব্যাগ রক্ত হয়তো বাঁচিয়ে দিতে পারে একটি প্রাণ, হাসি ফোটাতে পারে একটি পরিবারকে। সকলে প্রার্থনা করি।’

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে কনটেইনারের ডিপোতে লাগা আগুনে বাড়ছে লাশের সারি। প্রায় ২২ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে এসেছে আগুন। ধ্বংসস্তূপ থেকে একের পর এক লাশ বের করে আনছেন উদ্ধারকর্মীরা, গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হচ্ছে আরও অনেককে।

এরই মধ্যে ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট একসঙ্গে কাজ করছে সেখানে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে যোগ দিয়েছে সেনাবাহিনীও। বাড়ছে হতাহতের সংখ্যা ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ। এমতাবস্থায় দেশের মানুষকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় ক্রিকেটাররা।

এদিকে নিজের ফেসবুক পেজে সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা লিখেছেন, ‘চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনারের ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি এবং যারা আহত হয়েছেন তাদের প্রতি রইল সমমর্মিতা।’

তিনি লিখেন, ‘আমি চট্টগ্রামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ও সাধারণ মানুষদের অনুরোধ করি যেন হতাহতদের সাহায্যে এগিয়ে আসে। শুনেছি প্রচুর রক্তের প্রয়োজন। সবাই এগিয়ে আসুন। আপনার একটু সহযোগিতা, এক ব্যাগ রক্ত হয়তো বাঁচিয়ে দিতে পারে একটি প্রাণ, হাসি ফোটাতে পারে একটি পরিবারকে। সকলে প্রার্থনা করি।’

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে কনটেইনারের ডিপোতে লাগা আগুনে বাড়ছে লাশের সারি। প্রায় ২২ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে এসেছে আগুন। ধ্বংসস্তূপ থেকে একের পর এক লাশ বের করে আনছেন উদ্ধারকর্মীরা, গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হচ্ছে আরও অনেককে।

এরই মধ্যে ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট একসঙ্গে কাজ করছে সেখানে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে যোগ দিয়েছে সেনাবাহিনীও। বাড়ছে হতাহতের সংখ্যা ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ। এমতাবস্থায় দেশের মানুষকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় ক্রিকেটাররা।

এদিকে নিজের ফেসবুক পেজে সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা লিখেছেন, ‘চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনারের ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি এবং যারা আহত হয়েছেন তাদের প্রতি রইল সমমর্মিতা।’

তিনি লিখেন, ‘আমি চট্টগ্রামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ও সাধারণ মানুষদের অনুরোধ করি যেন হতাহতদের সাহায্যে এগিয়ে আসে। শুনেছি প্রচুর রক্তের প্রয়োজন। সবাই এগিয়ে আসুন। আপনার একটু সহযোগিতা, এক ব্যাগ রক্ত হয়তো বাঁচিয়ে দিতে পারে একটি প্রাণ, হাসি ফোটাতে পারে একটি পরিবারকে। সকলে প্রার্থনা করি।’

About admin

Check Also

সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের টাকার বিষয়ে সরকার কোনো তথ্য চায়নি: সুইস রাষ্ট্রদূত

এবার বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি চুয়ার্ড বলেছেন, সুইস ব্যাংকের কাছে অর্থ জমা নিয়ে সুইজারল্যান্ড …

Leave a Reply

Your email address will not be published.