প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা কলেজ ছাত্র

সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়েছে জানে আলম (২৪) নামের এক কলেজ ছাত্র। বুধবার (১৩ জুলাই) রাতে ওই প্রবাসীর বাড়ির লোকজন হাতে নাতে ধরে বেঁধে রাখে।

পরে স্ট্যাম্পে সই রেখে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সমাজকর্মীদের মাধ্যমে তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়। জানে আলম মধ্য খাষকাউলিয়া গ্রামের সিএনজি চালক আব্দুল মতিনের ছেলে। এ ঘটনায় থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে বলে ভুক্তভোগী পরিবার সুত্র জানিয়েছেন।

স্থানীয় ও পরিবার সুত্র জানান, চৌহালী উপজেলার ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজী আবুল কালাম আজাদের সিঙ্গাপুর প্রবাসী ছেলে হোসেন আলমগীরের (৩৩) সঙ্গে ২০১৫ সালে একই গ্রামের রেজাউল সরকারের মেয়ে মিতুর (২২) বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের সংসার ভালই চলছিল।

এর মধ্যে তাদের সংসারে হিজরতুল ইসলাম (৭) নামের এক ছেলে রয়েছে। তবে গত কয়েক বছর ধরে তাদের সংসারে কাঁটা হয়ে দাড়ায় সিলেট পলেটেকনিক কলেজের শিক্ষার্থী জানে আলম। স্বামী প্রবাসী হওয়ার সুযোগে মিতু খাতুন জানে আলমের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। গত বুধবার রাতে ওই কলেজ ছাত্র তার পরকীয়া প্রেমিকার বাড়িতে যায়।

এ সময় তাদের দুজনকে আপত্তিকর অবস্থায় বাড়ির লোকজন ধরে ফেলে। পরে স্থানীয়রা এসে তাদের বেঁধে রাখে। এ ঘটনা জানাজানি হলে এলাকার বিভিন্ন পর্যায়ের লোকজন জড়ো হয়। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান

ও রাজনৈতিকদের নেতাদের মাধ্যমে স্ট্যাম্পে দস্তক্ষত দিয়ে তাদেরকে ছেড়ে দিয়ে একটি বাড়িতে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই প্রবাসী হোসেন আলমগীর সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগ করেন, মিতু পরকিয়া প্রেমিক জানে আলমকে আমার পাঠানো টাকায় পড়াশোনা করিয়েছেন।

এছাড়া মিতুর নামে ব্যুারো বাংলাদেশ ব্যাংক একাউন্ডে ২ লাখ ৪০ হাজার, সোনালী ব্যাংকে ১০লাখ টাকার দুটি ডিপিএস, নগদ সাড়ে ১২ লাখ, সোনালী ব্যাংকের আরেকটি হিসেবে ২লাখ ২৭ হাজার সহ শশুর ও শাশুরির কাছে সাড়ে ৩লাখ টাকা রাখা আছে।

এছাড়া একটি ডায়মন্ডের গহনা সহ প্রায় ১৭ ভরি ওজনের গহনা সে নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় নায্য বিচার প্রার্থনা করছি। আামর কলিজার টুকরা সন্তানের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে নিশ্চয়ই আইন শৃঙ্খলা বাহিনীসহ সংশ্লিষ্টারা ন্যায় বিচার দেবে।এ বিষয়ে চৌহালী থানার ওসি হারুন অর রশিদ বলেন, এঘটনায় কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। আপনার কাছেই প্রথম জানলাম।

সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়েছে জানে আলম (২৪) নামের এক কলেজ ছাত্র। বুধবার (১৩ জুলাই) রাতে ওই প্রবাসীর বাড়ির লোকজন হাতে নাতে ধরে বেঁধে রাখে।

পরে স্ট্যাম্পে সই রেখে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সমাজকর্মীদের মাধ্যমে তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়। জানে আলম মধ্য খাষকাউলিয়া গ্রামের সিএনজি চালক আব্দুল মতিনের ছেলে। এ ঘটনায় থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে বলে ভুক্তভোগী পরিবার সুত্র জানিয়েছেন।

স্থানীয় ও পরিবার সুত্র জানান, চৌহালী উপজেলার ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজী আবুল কালাম আজাদের সিঙ্গাপুর প্রবাসী ছেলে হোসেন আলমগীরের (৩৩) সঙ্গে ২০১৫ সালে একই গ্রামের রেজাউল সরকারের মেয়ে মিতুর (২২) বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের সংসার ভালই চলছিল।

এর মধ্যে তাদের সংসারে হিজরতুল ইসলাম (৭) নামের এক ছেলে রয়েছে। তবে গত কয়েক বছর ধরে তাদের সংসারে কাঁটা হয়ে দাড়ায় সিলেট পলেটেকনিক কলেজের শিক্ষার্থী জানে আলম। স্বামী প্রবাসী হওয়ার সুযোগে মিতু খাতুন জানে আলমের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। গত বুধবার রাতে ওই কলেজ ছাত্র তার পরকীয়া প্রেমিকার বাড়িতে যায়।

About admin

Check Also

শঙ্কামুক্ত বর-কনে, ক্ষণে ক্ষণে কেঁদে উঠছেন

রাজধানীর উত্তরায় বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট প্রকল্পের ফ্লাইওভারের ভায়াডাক্ট চাপায় পিষ্ট প্রাইভেটকারে বেঁচে যাওয়া নবদম্পতি শঙ্কামুক্ত …

Leave a Reply

Your email address will not be published.