আবারও ভা’ইরাল হল, ক্লা’সের ম’ধ্যেই অ’ন্তরঙ্গ অ’বস্থায় ছাত্র-ছাত্রীর গো’পন ভিডিও

ক্লাসরুমে খুবই ঘনিষ্ঠ অবস্থায় ছিল দুই ছাত্র-ছাত্রী। তা ভিডি‌ও করছিল ক্লাসের কয়েকজন। পরে কে বা কারা ভিডিওটি ছড়িয়ে দেয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এরপর তা ভাইরাল হতেই শোরগোল পড়ে যায় ওই স্কুলে।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মগরার একটি স্কুলে। ইটিভি ভারত নামের গণমাধ্যমে প্রকাশ পাওয়া সংবাদে আরও বলা হয়েছে, দুই ছাত্র-ছাত্রী খুবই ঘনিষ্ঠ অবস্থায় রয়েছে। সেই দৃশ্য ভিডিও করছে আরও কয়েকজন।

সেই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হতে সময় লাগেনি। একপর্যায়ে অন্য শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদেরও চোখে পড়ে সেটা। গতকাল সকালে অভিভাবকরা একজোট হয়ে স্কুলের সামনে বিক্ষোভ করেন। অভিযুক্ত ছাত্র-ছাত্রীকে বহিষ্কার করারও দাবি তোলা হয়।

এ ব্যাপারে স্কুলের প্রধান শিক্ষক জানান, ওই দুই শিক্ষার্থীকে এরইমধ্যে বহিষ্কার করা হয়েছে। তবে, ভবিষ্যতের কথা ভেবে কেবল টেস্ট পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে তাদের। ক্লাস করতে দেওয়া হবে না।

প্রধান শিক্ষক বলেন, আমাদের স্কুল যথেষ্ট ঐতিহ্যবাহী। ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে এ ধরনের আচরণ মানা যায় না। প্রত্যেক ক্লাসরুমের বাইরে সিসিটিভি আছে। এবার আমরা ক্লাসরুমের ভেতরেও সিসিটিভি লাগানোর ব্যবস্থা করব।

স্কুলে মোবাইল ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে এবং কেউ মোবাইল নিয়ে ধরা পড়লে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

স্কুলের সাবেক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরাও এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তাদের কথায়, আমরাও পড়াশোনা করেছি। আমাদের ছেলে-মেয়েরাও পড়ছে। এই ধরনের ঘটনা সামনে আসায় চমকে যাচ্ছি। স্কুল কর্তৃপক্ষকে আরও কঠোর হতে হবে।

সেই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হতে সময় লাগেনি। একপর্যায়ে অন্য শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদেরও চোখে পড়ে সেটা। গতকাল সকালে অভিভাবকরা একজোট হয়ে স্কুলের সামনে বিক্ষোভ করেন। অভিযুক্ত ছাত্র-ছাত্রীকে বহিষ্কার করারও দাবি তোলা হয়।

এ ব্যাপারে স্কুলের প্রধান শিক্ষক জানান, ওই দুই শিক্ষার্থীকে এরইমধ্যে বহিষ্কার করা হয়েছে। তবে, ভবিষ্যতের কথা ভেবে কেবল টেস্ট পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে তাদের। ক্লাস করতে দেওয়া হবে না।

প্রধান শিক্ষক বলেন, আমাদের স্কুল যথেষ্ট ঐতিহ্যবাহী। ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে এ ধরনের আচরণ মানা যায় না। প্রত্যেক ক্লাসরুমের বাইরে সিসিটিভি আছে। এবার আমরা ক্লাসরুমের ভেতরেও সিসিটিভি লাগানোর ব্যবস্থা করব।

স্কুলে মোবাইল ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে এবং কেউ মোবাইল নিয়ে ধরা পড়লে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

স্কুলের সাবেক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরাও এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তাদের কথায়, আমরাও পড়াশোনা করেছি। আমাদের ছেলে-মেয়েরাও পড়ছে। এই ধরনের ঘটনা সামনে আসায় চমকে যাচ্ছি। স্কুল কর্তৃপক্ষকে আরও কঠোর হতে হবে।

About admin

Check Also

‘মন্তব্য কখনও গন্তব্য ঠেকাতে পারে না’ বলা সেই মামুন এখন পুলিশ হেফাজতে

প্রেম করে ছাত্রকে বিয়ের মাত্র ছয় মাসের মধ্যেই লাশ হলেন নাটোরের গুরুদাসপুরে আলোচিত সেই শিক্ষিকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.