সদরঘাটে বাবার হাত ফসকে নদীতে পড়ে নিখোঁজ শিশু খাদিজা

নাসির উদ্দিন টিটু, কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) থেকে: বাবার হাত ধরে লঞ্চ থেকে নেমে পল্টূন এর উপর দিয়ে সদরঘাট টার্মিনাল পার হওয়ার সময় দুই পল্টুনের মাঝখানের ফাঁকা দিয়ে বুড়িগঙ্গায় পরে খাদিজা (৫) নামের এক শিশু নিখোঁজ হয়েছে।

আজ সোমবার(১৮ই জুলাই) ভোরে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিখোঁজ খাদিজা ভোলার চরফ্যাশন থানার শিবার হাট গ্রামের রিপন মিয়ার মেয়ে। সে পিতা মাতার সাথে ঈদের ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরছিল।

নৌ-পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীদের থেকে জানা যায়, গতকাল রাতে ভোলা চরফ্যাশন থেকে ছেড়ে আসা এমভি তাশরিফ-৩ লঞ্চটি আজ সকালে সদরঘাটে ঢাকা নদীবন্দরের ১৩ নম্বর পন্টুনে এসে ভিড়ে।

শিশুটি তার বাবার সাথে লঞ্চ থেকে নেমে টার্মিনাল পার হওয়ার সময় ৭ ও ৮ নম্বর পল্টনের মাঝামাঝি ফাঁকা জায়গা দিয়ে নিচে পড়ে যায়। এসময় শিশুটির হাত বাবার হাতে ধরা থাকলেও হাত ফসকে শেষ রক্ষা হয়নি। নদীতে পড়ে যাবার পর বাবা রিপন মিয়ার চিৎকারে আশপাশের যাত্রীরা এগিয়ে এলেও নদীর তীব্র স্রোতে শিশুটি তলিয়ে যায়।

সদরঘাট নৌ-পুলিশের ইনচার্জ শফিকুর রহমান খান জানান, সকালে পল্টুনের মাঝখান দিয়ে একটি বাচ্চা নদীতে পড়ে যাওয়ার খবর পাওয়ার পরপরই ফায়ার সার্ভিসের ডুবরি দল ও নৌ পুলিশের সদস্যরা উদ্ধার অভিযান পরিচালনা শুরু করে।

নদীতে পানির স্রোত বেশি থাকায় উদ্ধার অভিযান ব্যাহত হচ্ছে। সারাদিন খুঁজেও আজ বাচ্চাটির কোন হদিস পাওয়া যায়নি। আমাদের উদ্ধার অভিযান সন্ধ্যা ছয়টায় আজকের মত সমাপ্ত, আগামী কাল আ

নাসির উদ্দিন টিটু, কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) থেকে: বাবার হাত ধরে লঞ্চ থেকে নেমে পল্টূন এর উপর দিয়ে সদরঘাট টার্মিনাল পার হওয়ার সময় দুই পল্টুনের মাঝখানের ফাঁকা দিয়ে বুড়িগঙ্গায় পরে খাদিজা (৫) নামের এক শিশু নিখোঁজ হয়েছে।

আজ সোমবার(১৮ই জুলাই) ভোরে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিখোঁজ খাদিজা ভোলার চরফ্যাশন থানার শিবার হাট গ্রামের রিপন মিয়ার মেয়ে। সে পিতা মাতার সাথে ঈদের ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরছিল।

নৌ-পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীদের থেকে জানা যায়, গতকাল রাতে ভোলা চরফ্যাশন থেকে ছেড়ে আসা এমভি তাশরিফ-৩ লঞ্চটি আজ সকালে সদরঘাটে ঢাকা নদীবন্দরের ১৩ নম্বর পন্টুনে এসে ভিড়ে।

শিশুটি তার বাবার সাথে লঞ্চ থেকে নেমে টার্মিনাল পার হওয়ার সময় ৭ ও ৮ নম্বর পল্টনের মাঝামাঝি ফাঁকা জায়গা দিয়ে নিচে পড়ে যায়। এসময় শিশুটির হাত বাবার হাতে ধরা থাকলেও হাত ফসকে শেষ রক্ষা হয়নি। নদীতে পড়ে যাবার পর বাবা রিপন মিয়ার চিৎকারে আশপাশের যাত্রীরা এগিয়ে এলেও নদীর তীব্র স্রোতে শিশুটি তলিয়ে যায়।

সদরঘাট নৌ-পুলিশের ইনচার্জ শফিকুর রহমান খান জানান, সকালে পল্টুনের মাঝখান দিয়ে একটি বাচ্চা নদীতে পড়ে যাওয়ার খবর পাওয়ার পরপরই ফায়ার সার্ভিসের ডুবরি দল ও নৌ পুলিশের সদস্যরা উদ্ধার অভিযান পরিচালনা শুরু করে।

নদীতে পানির স্রোত বেশি থাকায় উদ্ধার অভিযান ব্যাহত হচ্ছে। সারাদিন খুঁজেও আজ বাচ্চাটির কোন হদিস পাওয়া যায়নি। আমাদের উদ্ধার অভিযান সন্ধ্যা ছয়টায় আজকের মত সমাপ্ত, আগামী কাল আ

About admin

Check Also

লুঙ্গি ধরে টান দেয়ায় শ্যালিকাকে মেরে ঝুলিয়ে রাখে নতুন দুলাভাই

এবার কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীর রাখানায় খুশি হত্যা ঘটনায় নতুন বর (জেঠাতো বোনের স্বামী) আব্দুল গনিকে গ্রেপ্তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.