নামাজ পড়ছিলেন মা, দৌড়ে এসে কুপিয়ে মাথা আলাদা করে দিল ছেলে

ময়মনসিংহে নামাজ আদায়ের সময় মাকে দা দিয়ে কু’পিয়ে হ’ত্যা করেছেন ছেলে। এ ঘটনায় অ’ভিযু’ক্ত জাকির হোসেনকে আট’ক করেছে পুলিশ। তবে ছেলেটি ভারসাম্যহী’ন ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার মধ্য বারেরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নি’হতের নাম মোমেনা বেগম। ৬৫ বছর বয়সী মোমেনা একই গ্রামের আবুল বাশারের স্ত্রী।স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি (তদ’ন্ত) ফারুক হোসেন বলেন, এশার নামাজ পড়ছিলেন মোমেনা। এ সময় বাড়িতে এসে মাকে ডাকা’ডাকি করতে থাকেন জাকির।

নামাজ পড়ার কারণে তার মা সাড়া দিতে পারেননি। এতে ক্ষি’প্ত হয়ে দৌ’ড়ে ঘরে গিয়ে নামাজরত অবস্থায় তার মায়ের ঘাড়ে দা দিয়ে কো’প দেন। এতে মোমেনার মাথা শরীর থেকে বি’চ্ছি’ন্ন হয়ে ঘটনাস্থলেই মা’রা যান।

পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ম’রদেহ উ’দ্ধার করে ময়নাতদ’ন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ম’র্গে পাঠায়। এছাড়া ছেলে জাকির হোসেনকে আ’টক করা হয়। এ ঘটনায় আই’নি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান ওসি (তদন্ত) ফারুক হোসেন।

ময়মনসিংহে নামাজ আদায়ের সময় মাকে দা দিয়ে কু’পিয়ে হ’ত্যা করেছেন ছেলে। এ ঘটনায় অ’ভিযু’ক্ত জাকির হোসেনকে আট’ক করেছে পুলিশ। তবে ছেলেটি ভারসাম্যহী’ন ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার মধ্য বারেরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নি’হতের নাম মোমেনা বেগম। ৬৫ বছর বয়সী মোমেনা একই গ্রামের আবুল বাশারের স্ত্রী।স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি (তদ’ন্ত) ফারুক হোসেন বলেন, এশার নামাজ পড়ছিলেন মোমেনা। এ সময় বাড়িতে এসে মাকে ডাকা’ডাকি করতে থাকেন জাকির।

নামাজ পড়ার কারণে তার মা সাড়া দিতে পারেননি। এতে ক্ষি’প্ত হয়ে দৌ’ড়ে ঘরে গিয়ে নামাজরত অবস্থায় তার মায়ের ঘাড়ে দা দিয়ে কো’প দেন। এতে মোমেনার মাথা শরীর থেকে বি’চ্ছি’ন্ন হয়ে ঘটনাস্থলেই মা’রা যান।

পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ম’রদেহ উ’দ্ধার করে ময়নাতদ’ন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ম’র্গে পাঠায়। এছাড়া ছেলে জাকির হোসেনকে আ’টক করা হয়। এ ঘটনায় আই’নি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান ওসি (তদন্ত) ফারুক হোসেন।

ময়মনসিংহে নামাজ আদায়ের সময় মাকে দা দিয়ে কু’পিয়ে হ’ত্যা করেছেন ছেলে। এ ঘটনায় অ’ভিযু’ক্ত জাকির হোসেনকে আট’ক করেছে পুলিশ। তবে ছেলেটি ভারসাম্যহী’ন ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার মধ্য বারেরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নি’হতের নাম মোমেনা বেগম। ৬৫ বছর বয়সী মোমেনা একই গ্রামের আবুল বাশারের স্ত্রী।স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি (তদ’ন্ত) ফারুক হোসেন বলেন, এশার নামাজ পড়ছিলেন মোমেনা। এ সময় বাড়িতে এসে মাকে ডাকা’ডাকি করতে থাকেন জাকির।

নামাজ পড়ার কারণে তার মা সাড়া দিতে পারেননি। এতে ক্ষি’প্ত হয়ে দৌ’ড়ে ঘরে গিয়ে নামাজরত অবস্থায় তার মায়ের ঘাড়ে দা দিয়ে কো’প দেন। এতে মোমেনার মাথা শরীর থেকে বি’চ্ছি’ন্ন হয়ে ঘটনাস্থলেই মা’রা যান।

পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ম’রদেহ উ’দ্ধার করে ময়নাতদ’ন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ম’র্গে পাঠায়। এছাড়া ছেলে জাকির হোসেনকে আ’টক করা হয়। এ ঘটনায় আই’নি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান ওসি (তদন্ত) ফারুক হোসেন।

About admin

Check Also

লুঙ্গি ধরে টান দেয়ায় শ্যালিকাকে মেরে ঝুলিয়ে রাখে নতুন দুলাভাই

এবার কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীর রাখানায় খুশি হত্যা ঘটনায় নতুন বর (জেঠাতো বোনের স্বামী) আব্দুল গনিকে গ্রেপ্তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.