সুন্দরী স্ত্রী’র নিচে চা’পা পড়ে প্রা’ণ গেলো স্বামীর, দেখুন বিস্তারিত

আরো একটি অদ্ভুত ঘটনার সাক্ষী হল বিশ্ববাসী। যা ডাক্তার থেকে শুরু করে আ’ত্মীয়-স্বজন, কেউ বিশ্বা’স করতে পারছে না। কিন্তু ঘটনা শতভাগ সত্যি!
সিঁড়ি দিয়ে ওঠার সময় পা পিছলে স্বামীর গায়ের ওপর পড়ে যান ১২৮ কেজি ওজনের স্ত্রী’।

গু’রুতর আ’হত অবস্থায় তাদের হাসপাতা’লে ভর্তি করা হলেও, দুজনেরই মৃ’ত্যু হয়। এ দম্পতি হলেন- নটবরলাল বিথালিনী ও মঞ্জু বিথালিনী।
তারা থাকতেন ভা’রতের রাজকোটের অ’ভিজাত কালাভাড় রোডের রমধাম সোসাইটিতে।

সোমবার ভোরে ছে’লে আশিসের শ্বা’সক’ষ্টের খবর পেয়ে সিঁড়ি দিয়ে হুড়মুড়িয়ে উঠে ছে’লের ঘরে যাচ্ছিলেন মঞ্জুলাদেবী। ঠিক আগেই ছিলেন স্বামী নটবরলাল।সে সময় পা পিছলে ১২৮ কেজির মঞ্জুলা স্বামীর ওপর পড়ে যান। নটবরলালের মা’থায় মা’রাত্মক চোট লাগে, আ’হত হন মঞ্জুলাও।

হাসপাতা’লে নিয়ে যাওয়া হলে মস্তিষ্কে র’ক্তক্ষরণের জেরে দুজনেরই মৃ’ত্যু হয়। এই দম্পতির ছে’লে আশিসের স্ত্রী’ নিশা তাদের বাঁ’চানোর চেষ্টা করলে পিছলে পড়েন তিনিও। পায়ে চোট নিয়ে তিনিও হাসপাতা’লে ভর্তি।জানা গেছে,

রমধাম সোসাইটির দোতলা বাংলোর একতলায় থাকতেন ওই স্বামী স্ত্রী’, দোতলায় ছে’লে আশিস ও পুত্রবধূ নিশা। সোমবার ভোর চারটে নাগাদ আশিসের শ্বা’সক’ষ্ট শুরু হলে নিশা নীচে ওষুধ আনতে যান। তখনই বি’ষয়টি জানতে পারেন তিনি।

আরো একটি অদ্ভুত ঘটনার সাক্ষী হল বিশ্ববাসী। যা ডাক্তার থেকে শুরু করে আ’ত্মীয়-স্বজন, কেউ বিশ্বা’স করতে পারছে না। কিন্তু ঘটনা শতভাগ সত্যি!
সিঁড়ি দিয়ে ওঠার সময় পা পিছলে স্বামীর গায়ের ওপর পড়ে যান ১২৮ কেজি ওজনের স্ত্রী’।

গু’রুতর আ’হত অবস্থায় তাদের হাসপাতা’লে ভর্তি করা হলেও, দুজনেরই মৃ’ত্যু হয়। এ দম্পতি হলেন- নটবরলাল বিথালিনী ও মঞ্জু বিথালিনী।
তারা থাকতেন ভা’রতের রাজকোটের অ’ভিজাত কালাভাড় রোডের রমধাম সোসাইটিতে।

সোমবার ভোরে ছে’লে আশিসের শ্বা’সক’ষ্টের খবর পেয়ে সিঁড়ি দিয়ে হুড়মুড়িয়ে উঠে ছে’লের ঘরে যাচ্ছিলেন মঞ্জুলাদেবী। ঠিক আগেই ছিলেন স্বামী নটবরলাল।সে সময় পা পিছলে ১২৮ কেজির মঞ্জুলা স্বামীর ওপর পড়ে যান। নটবরলালের মা’থায় মা’রাত্মক চোট লাগে, আ’হত হন মঞ্জুলাও।

হাসপাতা’লে নিয়ে যাওয়া হলে মস্তিষ্কে র’ক্তক্ষরণের জেরে দুজনেরই মৃ’ত্যু হয়। এই দম্পতির ছে’লে আশিসের স্ত্রী’ নিশা তাদের বাঁ’চানোর চেষ্টা করলে পিছলে পড়েন তিনিও। পায়ে চোট নিয়ে তিনিও হাসপাতা’লে ভর্তি।জানা গেছে,

রমধাম সোসাইটির দোতলা বাংলোর একতলায় থাকতেন ওই স্বামী স্ত্রী’, দোতলায় ছে’লে আশিস ও পুত্রবধূ নিশা। সোমবার ভোর চারটে নাগাদ আশিসের শ্বা’সক’ষ্ট শুরু হলে নিশা নীচে ওষুধ আনতে যান। তখনই বি’ষয়টি জানতে পারেন তিনি।

About admin

Check Also

জীবনে সুখী হতে চাইলে বিয়ে করুন এসব মেয়েকে, জেনেনিন কেন !

প্রত্যেক নারীর মনোভাব বদলে গিয়েছে। আগের মতো আর নেই, যে খাবার সামনে পেলো আর ওটাই …

Leave a Reply

Your email address will not be published.