পুলিশ ভাই লাশগুলো রাখেন, মোবাইল-গহনা দিয়ে দেন: নিহতদের স্বজন

রাজধানীর উত্তরায় ক্রেন থেকে গার্ডার ছিটকে পড়ে প্রাইভেটকারের পাঁচজন নিহ’ত হয়েছেন। নিহ’তরা হলেন- রুবেল, ঝরণা, ফাহিমা, জান্নাত ও জাকারিয়া। তাদের ম’রদে’হ বর্তমানে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ম’র্গে রাখা হয়েছে। রাতে ম’র্গের সামনে ভিড় করছেন নিহ’তদের স্বজনরা।

তারা জানিয়েছেন, হতাহ’তরা ঢাকায় একটি বৌভাতের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে ফিরছিলেন। বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ায় ফাহিমা ও ঝরণা স্বর্ণের গহনা পরেছিলেন। শিশু জান্নাতের গলায়ও স্বর্ণের চেইন ছিল। আর রুবেলসহ তিনজনের কাছে ছিল দামি মোবাইল।

সোমবার (১৫ আগস্ট) রাতে ম’রদেহগুলো ম’র্গে ঢোকানোর সময় সবুজ মিয়া নামে এক স্বজনকে বলতে শোনা যায়, ‘পুলিশ ভাই, লা’শগুলো রাখেন। মোবাইল আর গহনাগুলো দিয়ে দেন। পরে পুলিশ সদস্যরা নিহ’তদের নিকটাত্মীয়দের স’ঙ্গে নিয়ে ম’র্গে ঢোকেন। সেখান ম’রদেহের শরী’র থেকে গহনা ও মোবাইল দেওয়ার ব্যবস্থা করেন।

সবুজ মিয়া বলেন, ‘বিয়ের অনুষ্ঠান। মেয়েদের সবার পরনে দামি গহনা ছিল। বড়দের সবার কাছে দামি মোবাইল ছিল। লা’শ ম’র্গে রাখা হচ্ছে। তাই এগুলো ফের’ত চেয়েছিলাম। লা’শের সঙ্গে থাকলে মোবাইল ও স্বর্ণের গহনা কেউ নিয়েও নিতে পারে।’

রাজধানীর উত্তরায় ক্রেন থেকে গার্ডার ছিটকে পড়ে প্রাইভেটকারের পাঁচজন নিহ’ত হয়েছেন। নিহ’তরা হলেন- রুবেল, ঝরণা, ফাহিমা, জান্নাত ও জাকারিয়া। তাদের ম’রদে’হ বর্তমানে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ম’র্গে রাখা হয়েছে। রাতে ম’র্গের সামনে ভিড় করছেন নিহ’তদের স্বজনরা।

তারা জানিয়েছেন, হতাহ’তরা ঢাকায় একটি বৌভাতের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে ফিরছিলেন। বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ায় ফাহিমা ও ঝরণা স্বর্ণের গহনা পরেছিলেন। শিশু জান্নাতের গলায়ও স্বর্ণের চেইন ছিল। আর রুবেলসহ তিনজনের কাছে ছিল দামি মোবাইল।

সোমবার (১৫ আগস্ট) রাতে ম’রদেহগুলো ম’র্গে ঢোকানোর সময় সবুজ মিয়া নামে এক স্বজনকে বলতে শোনা যায়, ‘পুলিশ ভাই, লা’শগুলো রাখেন। মোবাইল আর গহনাগুলো দিয়ে দেন। পরে পুলিশ সদস্যরা নিহ’তদের নিকটাত্মীয়দের স’ঙ্গে নিয়ে ম’র্গে ঢোকেন। সেখান ম’রদেহের শরী’র থেকে গহনা ও মোবাইল দেওয়ার ব্যবস্থা করেন।

সবুজ মিয়া বলেন, ‘বিয়ের অনুষ্ঠান। মেয়েদের সবার পরনে দামি গহনা ছিল। বড়দের সবার কাছে দামি মোবাইল ছিল। লা’শ ম’র্গে রাখা হচ্ছে। তাই এগুলো ফের’ত চেয়েছিলাম। লা’শের সঙ্গে থাকলে মোবাইল ও স্বর্ণের গহনা কেউ নিয়েও নিতে পারে।’

রাজধানীর উত্তরায় ক্রেন থেকে গার্ডার ছিটকে পড়ে প্রাইভেটকারের পাঁচজন নিহ’ত হয়েছেন। নিহ’তরা হলেন- রুবেল, ঝরণা, ফাহিমা, জান্নাত ও জাকারিয়া। তাদের ম’রদে’হ বর্তমানে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ম’র্গে রাখা হয়েছে। রাতে ম’র্গের সামনে ভিড় করছেন নিহ’তদের স্বজনরা।

তারা জানিয়েছেন, হতাহ’তরা ঢাকায় একটি বৌভাতের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে ফিরছিলেন। বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ায় ফাহিমা ও ঝরণা স্বর্ণের গহনা পরেছিলেন। শিশু জান্নাতের গলায়ও স্বর্ণের চেইন ছিল। আর রুবেলসহ তিনজনের কাছে ছিল দামি মোবাইল।

সোমবার (১৫ আগস্ট) রাতে ম’রদেহগুলো ম’র্গে ঢোকানোর সময় সবুজ মিয়া নামে এক স্বজনকে বলতে শোনা যায়, ‘পুলিশ ভাই, লা’শগুলো রাখেন। মোবাইল আর গহনাগুলো দিয়ে দেন। পরে পুলিশ সদস্যরা নিহ’তদের নিকটাত্মীয়দের স’ঙ্গে নিয়ে ম’র্গে ঢোকেন। সেখান ম’রদেহের শরী’র থেকে গহনা ও মোবাইল দেওয়ার ব্যবস্থা করেন।

সবুজ মিয়া বলেন, ‘বিয়ের অনুষ্ঠান। মেয়েদের সবার পরনে দামি গহনা ছিল। বড়দের সবার কাছে দামি মোবাইল ছিল। লা’শ ম’র্গে রাখা হচ্ছে। তাই এগুলো ফের’ত চেয়েছিলাম। লা’শের সঙ্গে থাকলে মোবাইল ও স্বর্ণের গহনা কেউ নিয়েও নিতে পারে।’

About admin

Check Also

লুঙ্গি ধরে টান দেয়ায় শ্যালিকাকে মেরে ঝুলিয়ে রাখে নতুন দুলাভাই

এবার কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীর রাখানায় খুশি হত্যা ঘটনায় নতুন বর (জেঠাতো বোনের স্বামী) আব্দুল গনিকে গ্রেপ্তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.