খালেদা জিয়ার জন্মদিনের তারিখ নির্ধারণে হাইকোর্টের শুনানি আজ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জন্মদিনের তারিখ নির্ধারণে হাইকোর্টের শুনানির জন্য আজ বুধবার (১৫ ডিসেম্বর) দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) খালেদা জিয়ার জন্মদিন সংক্রান্ত সব ধরনের নথি হাইকোর্টে পৌঁছেছে।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের বেঞ্চে রিট আবেদনটি আদেশের জন্য কার্যতালিকায় রয়েছে।এর আগে ১৩ জুন ৬০ দিনের মধ্যে আদালতে দাখিলের নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক, নির্বাচন কমিশনের সচিব,

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং সব শিক্ষাবোর্ডকে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। একইসঙ্গে ১৫ আগস্ট খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন বন্ধে কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি।

রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার ও অরবিন্দ কুমার রায়। রিট শুনানিতে বিরোধিতা করেন ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন। রিট আবেদনে স্বরাষ্ট্রসচিব, স্বাস্থ্যসচিব, আইজিপি, ডিএমপি কমিশনার, গুলশান থানার ওসি এবং খালেদা জিয়াকে বিবাদী করা হয়।

এদিতে যুবলীগনেতা মামুনুর রশিদ ১৫ আগস্টে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন। রিটে ১৫ আগস্ট খালেদা জিয়া জন্মদিন পালন করায় তাকে কেন সাজা দেওয়া হবে না, এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে। এ ছাড়া খালেদা জিয়ার শিক্ষাগত যোগ্যতা ও জন্ম নিবন্ধনের সব নথি হাইকোর্টে দাখিলের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জন্মদিনের তারিখ নির্ধারণে হাইকোর্টের শুনানির জন্য আজ বুধবার (১৫ ডিসেম্বর) দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) খালেদা জিয়ার জন্মদিন সংক্রান্ত সব ধরনের নথি হাইকোর্টে পৌঁছেছে।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের বেঞ্চে রিট আবেদনটি আদেশের জন্য কার্যতালিকায় রয়েছে।এর আগে ১৩ জুন ৬০ দিনের মধ্যে আদালতে দাখিলের নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক, নির্বাচন কমিশনের সচিব,

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং সব শিক্ষাবোর্ডকে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। একইসঙ্গে ১৫ আগস্ট খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন বন্ধে কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি।

রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার ও অরবিন্দ কুমার রায়। রিট শুনানিতে বিরোধিতা করেন ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন। রিট আবেদনে স্বরাষ্ট্রসচিব, স্বাস্থ্যসচিব, আইজিপি, ডিএমপি কমিশনার, গুলশান থানার ওসি এবং খালেদা জিয়াকে বিবাদী করা হয়।

এদিতে যুবলীগনেতা মামুনুর রশিদ ১৫ আগস্টে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন। রিটে ১৫ আগস্ট খালেদা জিয়া জন্মদিন পালন করায় তাকে কেন সাজা দেওয়া হবে না, এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে। এ ছাড়া খালেদা জিয়ার শিক্ষাগত যোগ্যতা ও জন্ম নিবন্ধনের সব নথি হাইকোর্টে দাখিলের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

সূত্রঃ বিডি২৪লাইভ

About admin

Check Also

ফখরুল হবেন স্বরাষ্ট্র ও এলজিআরডি মন্ত্রী: দুদু

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, সরকার বদল হলে বিএনপিই সরকার গঠন করবে। সরকার গঠন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.