২০ ফুট বড়ো রাগি কিং কোবরাকে হাতে নিয়ে খেলায় মাতলো যুবক, হঠাৎ ঘটলো বিপত্তি, ভিডিও তুমুল ভাইরাল

সোশ্যাল মিডিয়া হলো এমন একটি প্ল্যাটফরম যেখানে যে কোন মুহূর্তে যে কোন কিছু ভাইরাল হয়ে যেতে পারে। আপনি আগে থেকে হয়তো জানতে পারবেন না কোন ভিডিও হঠাৎ করে ভাইরাল হয়ে গেল।এই ভাইরাল তালিকায় থাকে নাচ এবং গানের ভিডিও। তার সঙ্গেই থাকে ছোটদের বিভিন্ন কাণ্ডকারখানা এবং বিভিন্ন মজার মজার ঘটনার ভিডিও।

এছাড়াও কিছু কিছু ভিডিও থাকে পশু পাখির ভিডিও। কিন্তু কিছু কিছু ভিডিও আমাকে ভাবতে বাধ্য করে। কয়েকটি ভিডিও আমা’দের একেবারে ‘হতচকিত করে দেয়।সোশ্যাল মিডিয়া বর্তমানে এমন একটি পথ আমা’দের জন্য খুলে দিয়েছে, যার মাধ্যমে আমর’া নিজেদের প্রতিভা তুলে ধরতে পারি পৃথিবীর কাছে।

সা’পের মত নিরীহ প্রাণী আর হয় না। শুধুমাত্র আ’ত্মর’ক্ষা ও শি’কারের জন্য সা’প অন্য পশু-পাখিদের উপর আ’ক্রমণ করে। পি’টিয়ে মে’রে ফেলেন অথবা গু’রুতরভাবে আঘা’ত করে দেন। এই ক্ষেত্রেই বিশেষ কিছু মানুষ যারা সর্প বিশেষজ্ঞ তারা সেইসব সা’পকে উ’দ্ধার করে রক্ষা করেন, তাদের বলা হয় সর্প রক্ষক।

এ রকমই একজন সর্প রক্ষক হলেন ভাভা সুরেশ। তাকে আমর’া প্রায়ই তার অফিসিয়াল ইউটিউব ভিডিও চ্যানেল থেকে দেখে থাকি। সেখানে তিনি তার সা’প ধ’রার বিভিন্ন ভিডিওগু’লি পোস্ট করেন। তার ভিডিও গু’লো দেখলে সত্যিই অবাক ‘হতে হয়। তার দুঃসাহসিক ভিডিওগু’লি বারবার আমা’দের মুগ্ধ করে।

কিছুদিন আগেই তার ভাইরাল একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছিল, তিনি তার সংরক্ষিত সমস্ত সা’পগু’লোকে নিরাপ’দ স্থানে মুক্ত করে দিচ্ছেন। সমস্ত সবগু’লি অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গেই স্বাধীনতা পেয়ে ধীরে ধীরে চলে গেল নিজের জায়গায়। বিশেষ করে মানুষ বি’ষধর নাভি সহিন সেগু’লি বুঝে উঠার আগেই সা’পকে মে’রে ফেলে, সেদিকে সুরেশ সেই সমস্ত সা’পগু’লোকে রক্ষা করে মান’বিকতার পরিচয় দিয়েছেন বারবার।

আমা’দের বাড়ির কুয়া আমা’দের কাছে এক অত্যন্ত নিরাপ’দ স্থান। বিশেষ করে এটা আমর’া গ্রামের দিকে ব্যবহার করতে দেখি। কিন্তু সেখানেই যদি সকাল সকাল দেখেন, সেই কুয়ার ভেতর ঢুকে আছে এক বিশাল বড় কোবরা সা’প? সম্প্রতি ভাইরাল একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সুরেশ দক্ষিণ ভারতের একটি গ্রামে গিয়ে দেখছেন, আর সেখানকার পুরানো কুয়ার ভেতর ঢুকে রয়েছে এক বিশাল বড় কোবরা সা’প।

সেটি কুয়ার একদম নিচের দিকে এর কুণ্ডলী কৃত অবস্থায় রয়েছে। সুরেশ সা’পটিকে ধরতে যেতেই সে বারবার তাকে ছোবল মা’রতে থাকে, কিন্তু প্রতিবারই সুরেশ একটুর জন্য রক্ষা পেয়ে যান। সা’পটি বিশাল বড় ফণা তুলে মুখে গর্জন করতে থাকে, সা’পটিকে কিছুতেই ধ’রা যাচ্ছিলোনা, শেষ পর্যন্ত সুরেশ অনেক ক’ষ্টের সা’পটিকে ধরতে সক্ষ’ম হন।

তিনি সা’পটিকে কুয়ার বাইরে নিয়ে আসেন এবং সেই সম্পর্কে অনেক গু’রুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদান করেন।
তিনি বলেন, যেহেতু এটি ওদের প্রজননের সময় তাই এরা সাধারণত ভিজে মাটি গর্ত এবং ঘরের মধ্যে থাকতে বেশি পছন্দ করে।কিন্তু এদের যেন কোনোভাবেই মা’রা না হয়, সেদিকে লক্ষ্য রাখা দরকার। সুরেশ এসব তথ্যগু’লি দর্শককে সমৃ”দ্ধ করেছে।

About admin

Check Also

প্রায় ৩৩ বছর ধরে নিজের বাড়ি মনে করে স্বেচ্ছাশ্রম দিয়ে সমগ্র রায়গঞ্জ শহরকে পরিচ্ছন্ন করেন এই বৃদ্ধ!

আমাদের আশেপাশের পরিবেশের চোখ রাখলে আপনারা এমন অনেক ব্যক্তি দেখতে পারবেন যারা ক্রমাগত পরিবেশকে নানান …

Leave a Reply

Your email address will not be published.